ভবনে বিস্ফোরণে হতাহতরা কুয়েটের শিক্ষার্থী

ময়মনসিংহ সংবাদদাতা : ময়মনসিংহের ভালুকার মাস্টারবাড়ি এলাকায় একটি ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনায় হতাহতরা খুলনা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) শিক্ষার্থী বলে জানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। গতকাল রাতের বিস্ফোরণের ওই ঘটনায় একজন নিহত এবং তিনজন আহত হয়েছেন।

র‌্যাব-১৪ এর কমান্ডিং অফিসার লে. কর্নেল শরীফুল ইসলাম, ভবনটির তৃতীয় তলায় চার শিক্ষার্থী থাকতেন প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। তারা খুলনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্সের শিক্ষার্থী। ভালুকায় স্কয়ার ফ্যাশন নামে একটি টেক্সটাইল মিলে ইন্টার্ন করছিলেন তারা।

নিহতের নাম তৌহিদ। তার বাড়ি বগুড়ায়। আহতরা হলেন শাহীন, হাফিজ ও দীপ্ত সরকার। এদের মধ্যে শাহীন সিরাজগঞ্জের, হাফিজ নওগাঁর মান্দা এবং দীপ্ত মাগুরার বাসিন্দা। আহতদের মধ্যে শাহীনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া হাফিজ ও দীপ্ত সরকারকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, গভীর রাতে হঠাৎ বিকট শব্দে ছয়তলা আর এস টাওয়ার ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। তৃতীয় তলায় বিস্ফোরণের পর জানালার গ্রিল ও কাঁচ ভেঙে প্রায় ১০০ মিটার দূরে গিয়ে ছিটকে পড়ে। ভবনটি কিছুদিন আগেই উদ্বোধন করা হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানান।
ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম জানান, বিস্ফোরণে ভবনটির তৃতীয় তলার পেছনের পার্টিশনওয়াল ও জানালার গ্লাস ভেঙে গেছে। জানালার অ্যালুমিনিয়ামের স্ট্রাকচারও পড়ে আছে। একটি জানালা ও বারান্দার ৫০ কেজি ওজনের গ্রিল কমপক্ষে ৫০ মিটার দূরে গিয়ে পড়েছে।

তবে দুর্ঘটনা না অন্য কোনো কারণে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে তা জানা যায়নি। বিষয়টি উদঘাটনের চেষ্টা চলছে।

র‌্যাব-১৪ এর কমান্ডিং অফিসার লে. কর্নেল শরীফুল ইসলাম জানান, বিস্ফোরণটি ছিল অনেক শক্তিশালী। একি নাশকতা নাকি অন্যকিছু এখনও বলা যাচ্ছে না। ঢাকা থেকে বোম ডিসপোজাল টিম এসেছে। পরে বলা যাবে। তবে স্থানীয়রা জানিয়েছেন, সেখানে তিনটি গ্যাস সিলিন্ডার দেখা গেছে।

Inline
Inline