ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আশুগঞ্জে অটোরিকশা চালক হত্যায় গ্রেপ্তার ২

ব্রাহ্মণবাড়িয়া আশুগঞ্জে ফারুক ইসলাম (১৬) নামে এক অটোরিকশা চালক হত্যাকারী দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা দুজন হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আশুগঞ্জ থানায় এক সংবাদ সম্মেলনে সরাইল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান ফকির এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, কিশোরগঞ্জের পুরাতন থানা এলাকার জামির আলীর ছেলে রাসেল মিয়া (১৯) ও জেলার সরাইলের পানিস্বর এলাকার আবু সাঈদ মিয়ার ছেলে রেহান উদ্দিন (২০)।
নিহতের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ৮ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৬টায় আলমনগরে তানিয়া অটো রাইসমিলের বাসা থেকে রিকশা নিয়ে বের হন ফারুক। বিকেল পর্যন্ত তার কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ পাওয়া যায়। এছাড়া রিকশাটিও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। সারাদিন খোঁজ খবর না পেয়ে রাতে পরিবারের লোকজন আশুগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। পরে ৯ ডিসেম্বর বিকেলে নিহতের বাবা কাশেম মিয়া সোনারামপুর সড়কের পাশে নিহতের লাশটি দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। অপরদিকে, তার ব্যাটারিচালিত রিকশাটি সন্ধ্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার নাটাই ইউনিয়নের বটতলি বাজারের একটি গ্যারেজ থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।
আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: বদরুল আলম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অপরাধে রাসেল ও রেহানকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের দেয়া তথ্যমতে বিভিন্ন স্থান থেকে হত্যকাণ্ডে ব্যবহৃত বিভিন্ন আলামত উদ্ধার করা হয়। পরে তারা ফারুককে হত্যার বিষয়টি পুলিশের কাছে স্বীকার করেন।