বেসরকারি খাতের দুই ব্যাংকের ৭৬ কোটি টাকা আটকাল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

সীমা অতিক্রম করে ঋণ বিতরণ অব্যাহত রাখায় বেসরকারি খাতের দুটি ব্যাংকের ৭৬ কোটি টাকা আটকে রেখেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর মধ্যে ওয়ান ব্যাংকের ৫১ কোটি টাকা ও প্রিমিয়ার ব্যাংকের ২৫ কোটি টাকা। কেন্দ্রীয় ব্যাংকে রক্ষিত হিসাব থেকে এসব টাকা আটকে রেখেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এ ছাড়া আরও কয়েকটি ব্যাংকের বিরুদ্ধে একই শাস্তির বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে বলে জানা গেছে।
বাংলাদেশ ব্যাংকের শীর্ষ পর্যায়ের এক কর্মকর্তা প্রথম আলোকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ বিষয়ে ওয়ান ও প্রিমিয়ার ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানায়, প্রচলিত ধারার ব্যাংকগুলোর তার আমানতের ৮৫ শতাংশ পর্যন্ত ঋণ বিতরণ করতে পারে। ইসলামি ধারার ব্যাংকগুলোর জন্য যা ৯০ শতাংশ। তবে বেসরকারি খাতের ৮টি ব্যাংক সেই ধারা লঙ্ঘন করে ঋণ বিতরণ অব্যাহত রাখে। তাদের কয়েক দফায় সতর্ক করার পরও ব্যাংকগুলো সীমার মধ্যে আসেনি। এমন পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকে রক্ষিত প্রিমিয়ার ব্যাংকের হিসাব থেকে ২৫ কোটি ও ওয়ান ব্যাংকের হিসাব থেকে ৫১ কোটি টাকা কেটে রাখে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এর আগে সমঝোতা স্মারকের (এমওইউ) চুক্তির শর্ত না মানায় জনতা ব্যাংকের ৪১৮ কোটি টাকা জব্দ করেছিল বাংলাদেশ ব্যাংক। চুক্তির তুলনায় অতিরিক্ত ঋণ বিতরণ করেছিল ব্যাংকটি। এ জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে থাকা জনতা ব্যাংকের হিসাব থেকে এ টাকা কেটে রাখা হয়।