বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের আবহাওয়া নিয়ে চিন্তিত তামিম

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বিশ্বকাপ ক্রিকেটের সময় ইংল্যান্ডে থাকবে পুরোপুরি গ্রীষ্ম মৌসুম। প্রচন্ড গরম। এই গরমকেই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জিং হিসেবে দেখছেন বাংলাদেশ দলের ওপেনার তামিম ইকবাল।

দু’দিন আগে থেকেই শুরু হয়েছে বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি। এখানেও প্রচন্ড গরম। দিনের বেলায় তাপমাত্রা অনেক সময় ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত উঠে যায়। এমন গরমে যে কারও হাস-ফাস করে ওঠার কথা।

যদিও এমন তাপমাত্রার আবহাওয়ায় অনুশীলন করাকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন তামিম। এই আবহাওয়ায় অনুশীলন করে নিজেদেরকে খাপ খাইয়ে নিতে পারার কারণে ইংল্যান্ডের কন্ডিশনে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের জন্য ভালো হবে বলে বিশ্বাস করেন তামিম।

আজ মিরপুরে অনুশীলনের ফাঁকে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে এসব বিষয়ই উঠে আসে তামিমের বক্তব্যে। ইংল্যান্ডের ওয়েদার (আবহাওয়া) চ্যালেঞ্জ কি না জানতে চাইলে তামিম ইকবাল আবহাওয়ার ভিন্নতার কথা তুলে ধরে নিজেদের অনুশীলনটা যে সেখানে কাজে লাগবে, সেটাই জানালেন।

তামিম বলেন, ‘টোটালি ডিফারেন্ট ওয়েদার হবে সম্ভবত। একটা যে জিনিস, আমার কাছে মনে হচ্ছে যে, হার্ড ওয়ার্কটা আমরা এখানে করে নিচ্ছি। এরকম ওয়েদারে রানিং করা, ব্যাটিং করা, ফিল্ডিং করা, জিম করা- এটা খুব চ্যালেঞ্জিং। এই যে কষ্টটা আমরা এখানে করে নিচ্ছি, যখন আমরা ওই ধরণের ওয়েদারে যাবো, আমার কাছে মনে হয় যে এটলিস্ট ফিজিক্যাল ফিটনেসের দিক থেকে হেল্প করবে। সো, আমার কাছে মনে হয়, দিজ আর দ্য টাইমস হোয়্যার উই পুট দ্য হার্ড ওয়ার্ক। আর সবাই চেষ্টা করতেছে তাদের মতো করে। আরও দুই-তিন দিন প্র্যাকটিস আছে।’

মে’র শুরুতে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ। যেখানে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড ছাড়াও রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তামিমের কাছে জিজ্ঞাসা, আয়ারল্যান্ডে বড় চ্যালেঞ্জটা কি হবে?

তামিম বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় কন্ডিশনটা একটা চ্যালেঞ্জ হবে। কারণ আয়ারল্যান্ড এমন একটা দেশ যেখানে আমরা খুব বেশি খেলিনি। শেষ যে বার খেলেছিলাম, তখনও উইকেট খুব একটা সহজ ছিল না। ইট ওয়াজ ডিফিকাল্ট। তাই আমার কাছে মনে হয় আগের সাতটা দিন এবং প্রস্তুতি ম্যাচটা খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

ত্রিদেশীয় সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজ নিয়েও চিন্তা করছেন তামিম। তিনি বলেন, ‘প্রথম ম্যাচটা আমরা কিভাবে শুরু করি সেটা খুব ইম্পর্ট্যান্ট হবে। কারণ, সেখানে আরও একটা প্রতিপক্ষ থাকবে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যারা এখন খুব ভালো ফর্মে আছে। সো ইটস ইম্পর্ট্যান্ট টু স্টার্ট দ্য ট্যুর ওয়েল, উইথ দ্য প্র্যাকটিস গেম অ্যান্ড দেন দ্য ফার্স্ট গেম।’