বিএনপির সহনশীলতায় সরকার হতাশ: নজরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রায়ের পর দলের নেতাকর্মীদের সহনশীল প্রতিক্রিয়া ও শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে সরকার হতাশ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেছেন, বিএনপির কর্মীরা ভাঙচুর করলে সরকারি দল মানুষ পুড়িয়ে তাদের ওপর দায় দিত।

রবিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি। বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) আলোচনা সভাটি আয়োজন করে।

খালেদা জিয়াকে জেলে দিয়ে তার জনপ্রিয়তা আরও বাড়ানো হয়েছে বলে মনে করেন নজরুল ইসলাম খান। ‘বেগম খালেদা জিয়া বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় মানুষ। তাকে জেলে দিয়ে কোনো লাভ হয় নাই। বরং বেগম খালেদা জিয়ার জনপ্রিয়তা আরও বেড়েছে।’

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে নজরুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের ওপর যত আঘাত করা হচ্ছে, জনগণের কাছে আমাদের জনপ্রিয়তা বাড়ছে। ষড়যন্ত্র তো নানা রকম আছে। আপনারা আল্লাহর ওয়াস্তে আবেগের বশবর্তী হয়ে কোনো ষড়যন্ত্রের অংশ হবেন না।’

বিএনপির এই স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, ‘বিএনপি ও অঙ্গ দলের নেতারা বেগম খালেদা জিয়ার গ্রেফতারের পর তাদের (সরকারের) চিন্তা অনুযায়ী কিছু করে নাই, এতে তারা একটু হতাশ। বিএনপির নেতাকর্মীরা যদি ভাঙচুর করতে, তাহলে ওই সুযোগে তারা (সরকার) গাড়িতে আগুন দিত, মানুষ পুড়িয়ে মারত এবং দায় দিত বিএনপির ওপর। এই সুযোগটা না পেয়ে তারা খুবই হতাশ।’

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বেগম খালেদা জিয়া সুবিচার পাননি বলে দাবি করেন বিএনপির এই নীতি নির্ধারক। এ মামলায় গত বৃহস্পতিবার আদালত খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়। এর পরপর তাকে নিয়ে যাওয়া হয় পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয় কারাগারে।

সংগঠনের সহ-সভাপতি ডা. আবদুল কুদ্দুসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, ডা. জেড এম জাহিদ হোসেন, বিএনপি নেতা কাদের গনি চৌধুরী প্রমুখ।

Inline
Inline