বিএনপির ও সহযোগীদের সাত দিনের ‘নমনীয়’ কর্মসূচি

নিজস্ব প্রতিবেদক : একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায়তারেক রহমানসহ দলের বেশ কয়েকজন নেতার সর্বোচ্চ সাজার প্রতিক্রিয়ায় কর্মসূচি এসেছে নমনীয়। বিএনপি এক দিনের এবং সহযোগী সংগঠনগুলো ছয় দিনের কর্মসূচি পালন করবে।

আগের দিনই বিএনপি বলেছিল, রায় যাই হোক, কর্মসূচি হবে শান্তিপূর্ণ- আগেই ঘোষণা ছিল বিএনপির। বুধবার রায়ের পর দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী যে কর্মসূচি ঘোষণা করেন, তাতে আছে ঢাকাসহ সারা দেশের মহানগর, জেলা ও উপজেলায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ।

রায়ের পর সংবাদ সম্মেলন করে একে ‘ঘৃণাভরে’ প্রত্যাখান করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তার দাবি, এটি ফরমায়েশি রায়। আর কর্মসূচি ঘোষণা করেন রিজভী।

রিজভী নেতা জানান, বৃহস্পতিবার বিএনপি, ১৩ অক্টোবর শনিবার ছাত্রদল, পরদিন যুবদল, ১৫ অক্টোবর স্বেচ্ছাসেবক দল বিক্ষোভ করবে বিএনপি।

এ ছাড়া ১৬ অক্টোবর ঢাকাসহ সারাদেশে কালো পতাকা মিছিল করবে বিএনপি। পরদিন ঢাকাসহ সারাদেশ মহিলা দল এবং ১৮ অক্টোবর মানববন্ধন করবে শ্রমিক দল।

বুধবার দুপুরে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় ১৯ জনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। ঢাকার-দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন এ রায় ঘোষণা করেন। ফাঁসির আসামিদের মধ্যে আছেন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর,উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিণ্টু।

অন্যদিকে এই মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়েছে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের। বাকিদের মধ্যে বিএনপির সংসদ সদস্য কাজী শাহ মোফাজ্জল হোসাইন কায়কোবাদ,সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার তৎকালিন রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী।