বাসযাত্রীর এক লাখ টাকা নিয়ে দৌড়, ধরে গণধোলাই

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা : ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের ফতুল্লায় যাত্রীবাহী বাসে অভিনব কায়দায় এক যাত্রীর কাছ থেকে এক লাখ টাকা ছিনতাই করে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় দুই ছিনতাইকারীকে ধরে গণধোলাই দিয়েছে স্থানীয়রা।

গণধোলাই শেষে তাদের পুলিশে সোপর্দ করা হয়। পরে ছিনতাইকারীদের কাছ থেকে এক লাখ টাকা উদ্ধার করে পুলিশ। তারা পেশাদার ছিনতাইকারী বলে পুলিশ জানিয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ফতুল্লার শিবুমার্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেফতার ছিনতাইকারীরা হলেন- রাজধানীর শ্যামপুর এলাকার আনোয়ার হোসেন খানের ছেলে জুয়েল (৩০) ও নারায়ণগঞ্জ সিদ্ধিরগঞ্জের সানারপাড় এলাকার মৃত. আ. ছাত্তার গাজির ছেলে জামাল হোসেন ভুলু (৩৮)।

ছিনতাইয়ের শিকার আতাউর রহমান বলেন, আমি প্রাইম টেক্সটাইল মিলের কর্মকর্তা। একটি সমিতি থেকে এক লাখ টাকা উঠিয়ে বাসায় রাখি। বৃহস্পতিবার দুপুরে ফতুল্লার দেলপাড়া এলাকার বাসা থেকে টাকা নিয়ে চাষাঢ়া সোনালী ব্যাংক শাখায় জমা দেয়ার জন্য মৌমিতা পরিবহনের বাসে উঠি। বাসটি শিবুমার্কেট আসামাত্রই একজন আমার কাছে দাঁড়িয়ে বমি করার চেষ্টা করেন। তখন তাকে ধরার চেষ্টা করলে আরেকজন আমার পকেট থেকে টাকা নিয়ে দ্রুত বাস থেকে নেমে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় বমির চেষ্টাকারী ব্যক্তিও বাস থেকে নেমে দৌড় দেয়। পকেটে হাত দিয়ে টাকা না পেয়ে আমি চিৎকার দেই। আমার চিৎকারে এলাকাবাসী ধাওয়া দিয়ে তাদের দুইজনকে আটক করে। পরে তাদের গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের ওসি মঞ্জুর কাদের বলেন, ছিনতাইকারী দুইজনকে গ্রেফতার করে তাদের কাছ থেকে ছিনতাইকৃত এক লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে ছিনতাইয়ের শিকার আতাউর রহমান ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।