বাসভাড়ার নৈরাজ্য বন্ধের দাবিতে ১৬ সংগঠনের মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীতে গণপরিবহনের ভাড়া-নৈরাজ্য বন্ধ ও পর্যাপ্ত গণপরিবহনের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ১৬টি সংগঠন। শনিবার বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধনে অংশ নেয়া সংগঠনের নেতারা বলেন, রাজধানীতে গণপরিবহনের নৈরাজ্য চলছেই। অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হলেও যাত্রীদের ন্যূনতম সেবা দেয়া হচ্ছে না। সিটিং সার্ভিসের নামে মানুষের পকেট কাটা হচ্ছে।

বাসে অতিরিক্ত ভাড়ার জন্য সরকার ও কর্তৃপক্ষের অবহেলাকে দায়ী করেন বক্তারা। তারা বলেন, সম্প্রতি মতিঝিল থেকে আবদুল্লাহপুর পর্যন্ত কিছু শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাস সার্ভিস চালু করা হয়েছে। ২০ কিলোমিটার রাস্তায় ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ১০০ টাকা। সরকার বা বিআরটিএর আন্তরিকতার অভাবেই ঢাকা মহানগরীতে গণপরিবহন খাতে নৈরাজ্য চরম আকার ধারণ করেছে।

বক্তারা বলেন, ঢাকা শহরের বর্তমানে যানজটের কারণে প্রতিদিন ৩২ লাখ কর্মঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে। আর বছরে যে আর্থিক ক্ষতি হয়, অঙ্কের হিসাবে তা প্রায় ৩০ হাজার কোটি টাকা। এই শহরে এখন ঘণ্টায় গড়ে প্রায় সাত কিলোমিটার গতিতে চলছে যানবাহন।

২০১৩ সালের এপ্রিলে প্রকাশিত ঢাকা যানবাহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ পরিচালিত সমীক্ষা উল্লেখ করে তারা বলেন, ঢাকায় দিনে অন্তত ২১ লাখ পরিবহন ট্রিপের প্রয়োজন। কিন্তু যানজটের কারণে এর তিন ভাগের এক ভাগও হচ্ছে না। রাজধানীর প্রতি তিন হাজার যাত্রীর যাতায়াতের জন্য বাস ও মিনিবাস আছে মাত্র ১টি। তা ছাড়া অটোরিকশাগুলোর এক-তৃতীয়াংশ অচল।

গণপরিবহনের সংকটের বিপরীতে ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যা বাড়ছে উল্লেখ করে মানববন্ধনে জানানো হয়, ঢাকায় প্রতিদিন নামছে ৩১৭টি ব্যক্তিগত গাড়ি।

অবিলম্বে যানজটসহ অতিরিক্ত ভাড়া নিয়ন্ত্রণ ও পর্যাপ্ত গণপরিবহনের ব্যবস্থা করে নগরবাসীর যাতায়াত সমস্যার সমাধান করতে সরকারের প্রতি দাবি জাননো হয় মানববন্ধনে।

পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের (পবা) চেয়ারম্যান আবু নাসের খানের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন নাগরিক অধিকার সংরক্ষণ ফোরামের (নাসফ) সাধারণ সম্পাদক মো. তৈয়ব আলী, পবার সহ-সম্পাদক এম এ ওয়াহেদ, বিডি-ক্লিক-এর সভাপতি আমিনুল ইসলাম টুব্বুস, বানিপার সভাপতি প্রকৌশলী মো. আনোয়ার হোসেন, নাসফ-এর সাংগঠনিক সম্পাদক অহিদুর রহমান, তথ্য সম্পাদক ক্যামেলিয়া চৌধুরী, আইন বিষয়ক সহ-সম্পাদক মো. ওমর ফারুক, মো. রাশেদুল ইসলাম, ডাব্লিউবিবি-ট্রাস্ট-এর প্রকল্প কর্মকর্তা আতিকুর রহমান, শুভ কর্মকার প্রমুখ।

পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা), নাগরিক অধিকার সংরক্ষণ ফোরাম (নাসফ), নগরবাসী সংগঠন, পুরান ঢাকা নাগরিক উদ্যোগ, সুবন্ধন সমাজকল্যাণ সংগঠন, পরিবেশ আন্দোলন মঞ্চ, বিসিএইচআরডি, নোঙর, ডাব্লিউবিবি-ট্রাস্ট, নির্মূল কমিটি, ইয়ুথ সান, মার্শাল আর্ট ফাউন্ডেশন, বিডি-ক্লিক, বানিপা, সাচেতন নগরবাসী এবং ইয়ুথ ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ মানববন্ধনে অংশ নেয়।

Inline
Inline