বাবা-মাকে হারানো যন্ত্রণা ছিল মৃত্যুর সামিল: শাহরুখ

বিনোদন ডেস্ক : আগামী ২৩ মার্চ মুক্তি পাবে বলিউড অভিনেত্রী রানী মুখার্জির নতুন সিনেমা ‘হিচকি’। এ সিনেমাটি ঘিরে বলিউড তারকারা তাদের জীবনের হিচকির (জীবনের সবচেয়ে বড় ধাক্কা) বিষয় শেয়ার করেছেন।

তারই ধারাবাহিকতায় এবার নিজের জীবনের সবচেয়ে বড় দুর্ঘটনার কথা জানান বলিউড কিং শাহরুখ খান। যে ঘটনার কথা এতদিন জানা ছিল না কারও। রানী মুখার্জির কাছে শাহরুখ তার জীবনের হিচকি সম্পর্কে জানান, ‘বাবা-মায়ের চলে যাওয়াটা আমার কাছে হিচকি মোমেন্ট। তখন আমার ১৫ বছর বয়স। বাবা চলে যান। আর ২৬ বছর বয়সে মা। বাবা-মাকে ছাড়া ফাঁকা বাড়িটা যেন আমাকে আর বোনকে গিলে খেত। একাকিত্ব, দুঃখ, বাবা-মাকে হারানোর যন্ত্রণা আমার মনে হয়েছিল মৃত্যুর সামিল। সে সব দুঃখ ভুলতে, হিচকি মোমেন্টকে অতিক্রম করতে আরও বেশি করে অভিনয়ে মন দিয়েছিলাম।’

শাহরুখ জানান, ‘বাবা-মা হঠাতই মারা যান। ক্যান্সার ধরা পড়েছিল তাদের। মাত্র আড়াই মাসের মধ্যে সব শেষ হয়ে যায়। একদিন আমি ভাবলাম, এই দুঃখ থেকে বেরোবো কী করে? তখনই আরও বেশি করে কাজে জড়িয়ে পড়লাম। ভাল ব্রেক পেলাম। আসলে অভিনয় শুধু আমার কাজের জায়গা নয়। আমার সমস্ত ইমোশন প্রকাশের জায়গা। ঈশ্বর এই জীবন দিয়েছেন। তার সঙ্গে সমস্যাও দিয়েছেন। আবার ঈশ্বরই তা থেকে মুক্তির উপায়ও দেখিয়ে দেন।’

সম্প্রতি ভারতের ছোটদের ড্যান্সের রিয়েলিটি শো সুপার ড্যান্সার এ অতিথি হয়ে গিয়েছিলেন রানি মুখার্জি। সে সময় সেখানে বিচারক হিসেবে থাকা আরেক অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি তার হিচকি সম্পর্কে জানিয়েছিলেন, সন্তান গর্ভধারণে তার কষ্টের কথা।

‘হিচকী’তে এক শিক্ষিকার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন রানি। তার চরিত্রের নাম নয়না মাথুর। স্নায়ুর সমস্যার কারণে তার কথা বলার সময় সমস্যা হয়। সেই প্রতিকূলতা পেরিয়ে তিনি ছাত্রছাত্রীদের মন জয় করে নেন। সিদ্ধার্থ পি মলহোত্র পরিচালিত এই ছবিটির ট্রেইলার ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে।