বাটখারা দিয়ে মাথা থেঁতলে খুন

সিলেট সংবাদদাতা : সিলেট নগরের মদিনা মার্কেট এলাকায় এক ফল ব্যবসায়ীকে বাটখারা দিয়ে মাথা থেঁতলে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার পর নিহতের বন্ধু এবং একই মেসের রুমমেট রহমান মিয়া নিখোঁজ রয়েছেন। পুলিশের ধারণা রহমানই শাহাবুদ্দিনকে হত্যা করে পালিয়ে গেছেন।

নিহত শাহাবুদ্দিন মিয়া (৪০) সিলেটের দক্ষিণ সুরমার সুলতানপুর গ্রামের মৃত তৈয়ব আলীর ছেলে।

ওই ফলের দোকানের ম্যানেজার রুবেল আহমদ জানান, শাহাবুদ্দিন মিয়া মদিনা মার্কেট এলাকায় কামরুল মিয়ার কলোনির একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন। সেখানে তার সঙ্গে রুমমেট হিসেবে থাকতেন নগরের আম্বরখানা এলাকার আরেক ফল ব্যবসায়ী রহমান মিয়া। বুধবার রাত ১টার দিকে দোকান বন্ধ করে ওই বাসায় শাহাবুদ্দিনসহ দোকানের অন্য কর্মচারীরা রাতের খাবার খান। পরে শাহাবুদ্দিন মিয়া ও রহমান মিয়াকে রেখে সবাই যার যার বাসায় চলে যান।

বৃহস্পতিবার সকালে শাহাবুদ্দিন মিয়ার এক সহকর্মী কলোনিতে তাদের ঘরের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় দরজা খোলা দেখে এগিয়ে গেলে দেখেন শাহাবুদ্দিন মিয়ার গলা দিয়ে শব্দ হচ্ছে। শব্দ শুনে তিনি ঘরে ঢুকে দেখেন শাহাবুদ্দিন মিয়া মাথা রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে আছেন। তার মাথা পাথরের আঘাতে থেতলে গেছে।

পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান প্রতিবেশীরা। কিন্তু হাসাপাতালে নেয়ার কিছুক্ষণ পর তিনি মারা যান।

মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সেলিম মিয়া জানান, হত্যাকাণ্ডের পর থেকে নিহতের রুমমেট রহমান মিয়াকে খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ। তার দোকনে গিয়েও পাওয়া যায়নি। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে।

ওসি জানান, বাসার মেঝের মধ্যে রক্তাক্ত অবস্থায় ওজন পরিমাপক একটি পাঁচ কেজি ওজনের বাটখারা পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে সেটা দিয়েই মাথা থেতলে তাকে হত্যা করা হয়েছে।