বাজারে সবজির দাম চড়া

মৌসুম হলেও দাম কমছে না গ্রীষ্মকালীন সবজির। ইতোমধ্যে কয়েক দফা বেড়েছে সবজির দাম। বেড়েছে পেঁয়াজের দামও। তবে কমেছে ডিমের। আর স্থিতিশীল আছে মুদিপণ্য ও মাছ-মাংসের দাম। তবে সামনে রমজান ঘনিয়ে আসায় ভোগ্যপণ্যের দাম আরেক দফা বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন বিক্রেতা ও ভোক্তারা।

আজ শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে এসব চিত্র। বিক্রেতারা বলছেন, গ্রামে উৎপন্ন সবজি ভোক্তা পর্যন্ত আসতে কয়েক দফায় হাত বদল হয়। এতে সবজির দাম বেড়ে যায়। এর পাশাপাশি রয়েছে পরিবহন খরচ ও রাস্তায় পুলিশি চাঁদা। এসব মিলিয়ে কৃষকের কাছ থেকে কেনা একটি সবজির দাম দুই তিন গুণ বেড়ে পৌঁছায় সাধারণ ভোক্তার কাছে। তবে ক্রেতারা মনে করেন, সিন্ডিকেট করেই বিক্রেতারা দাম বাড়িয়ে দেয়।

কাঁচাবাজারে দেখা যায় আজ বাজারে প্রতি কেজি পটল বিক্রি হচ্ছে মান ভেদে ৪৫-৫০ টাকা। এছাড়া প্রতিকেজি কাঁকরোল ৮০ টাকা, চিচিঙ্গা ৫০ টাকা, ঢেড়স ৬০ টাকা, ঝিঙ্গা ৬০ টাকা, শিম ৫০ টাকা, করলা ৫০ টাকা, বরবটি ৬০ টাকা, কচুর লতি ৫০ টাকা, চাল কুমড়া ৪০ টাকা, লাউ ৪০-৫০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৬০ টাকা, গাজর ৪০ টাকা, পেঁপে ৪০ টাকা, শশা ৩০ থেকে ৪০ টাকা, কাঁচা কলা প্রতি হালি ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বাজারে দেশি পেঁয়াজ কেজিপ্রতি ৩৫ টাকা, আমদানি করা পেঁয়াজ ২৫ টাকা, দেশি রসুন ১০০ থেকে ১১০ টাকা, আমদানি করা রসুন ১৮০ টাকা, আলু ২০ টাকা, আদা ৮০ থেকে ৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

মুদিপণ্যের মধ্যে কেজি প্রতি দেশি মসুর ডাল ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা, ভারতীয় মোটা মসুর ডাল ১০০-১১০ টাকা, মুগ ডাল ১১০ টাকা, বুটের ডাল ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, মাসকলাই ৯০ টাকা, ছোলা ৬০ থেকে ৬৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

ভোজ্য তেলের মধ্যে খোলা সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ৮৫-৯০ টাকা, সুপার ৬৩-৬৫ টাকা। বোতলজাত সয়াবিন প্রতিটি ৫ লিটারের রূপচাঁদা ৪৫৫ টাকা এবং তীর ৪৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

মাছের বাজার কিছুটা স্থিতিশীল। আকার ভেদে প্রতিকেজি রুই মাছ বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা থেকে ৩৫০ টাকা, কাতল ২৫০- ৪৫০ টাকা, তেলাপিয়া প্রতি কেজি ১৪০ থেকে ১৮০ টাকা, প্রকার ভেদে চিংড়ি ৬৫০ টাকা থেকে ৯০০ টাকা, টেংরা ৪৫০ টাকা, সিলভার কার্প ১৬০ থেকে ২০০ টাকা, পাঙ্গাস ১৪০ থেকে ১৮০ টাকা, চাষের কৈ ২৫০ থেকে ২৮০ টাকা, এবং দেশি মাগুর ৬৫০ থেকে ৭০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে। বাজারে আকার ভেদে প্রতি হালি ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে পাঁচ হাজার টাকা থেকে ১০ হাজার টাকার মধ্যে।

প্রতিকেজি গরুর মাংস ৪২০-৪৩০ টাকা, খাসির মাংস ৬০০-৬৫০ টাকা, ব্রয়লার মুরগি ১৪০-১৫০ টাকা, লেয়ার ১৬০-১৭০ টাকা এবং দেশি মুরগি আকারভেদে ২৮০-৪০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ফার্মের লাল ডিম প্রতি হালি ৩২ টাকা এবং দেশি মুরগির ডিম ৪০ টাকা ও হাঁসের ডিম বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪২ টাকা দরে।