বাংলাদেশ-ভুটানের মধ্যে ৫ বিষয়ে সমঝোতা স্মারক সই

বিশেষ সংবাদদাতা : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিংয়ের দ্বিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৩ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী নিজ নিজ দেশের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। বৈঠকে স্বাস্থ্য, কৃষি, নৌপরিবহন, পর্যটন খাতে সহযোগিতা এবং জনপ্রশাসন খাতে প্রশিক্ষণসহ ৫টি বিষয়ে সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে।

বৈঠকে উভয় দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। দুই দেশ ব্যবসার প্রসার ঘটানোর লক্ষ্যে সম্মত হন দু’দেশের প্রধানমন্ত্রী। বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন। এর আগে সকাল ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পৌঁছালে তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গতকাল শুক্রবার (১২ এপ্রিল) ঢাকায় পৌঁছেই বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতি ও জাতীয় সৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানান ভুটানের প্রধানমন্ত্রী। পরে বিকেলে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে এক বৈঠকে মতবিনিময় করেন।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের সাবেক ছাত্র ডা. শেরিংয়ের হৃদয়ে একটি বিশেষ জায়গা জুড়ে রয়েছে বাংলাদেশ। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের অষ্টাদশ ব্যাচের ছাত্র লোটে শেরিং এমবিবিএস পাস করার পর বাংলাদেশেই সার্জারিতে উচ্চতর ডিগ্রি নেন। দেশে ফিরে যোগ দেন চিকিৎসা পেশায়। পরে সরকারি চাকরি ছেড়ে ২০১৩ সালে রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে অল্প সময়ের মধ্যেই তার দল ডিএনটি চমক সৃষ্টি করে। ২০১৮ সালের নির্বাচনে ডিএনটি জয়ী হলে ডা. শেরিং হন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে আগামীকাল রোববার (১৪ এপ্রিল) পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার কথা রয়েছে ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর। ভোরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সুরের ধারার আয়োজনে পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে তিনি উপস্থিত থাকবেন। পরে নিজের পুরনো শিক্ষায়তন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে যাবেন তিনি। সেখানে বর্তমান শিক্ষার্থীদের মুখোমুখি হবেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী।

বিমসটেকের সদস্য দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ঢাকায় এ জোটের সচিবালয়েও যাবেন লোটে শেরিং। সফর শেষ করে আগামী ১৫ এপ্রিল (সোমবার) তার ঢাকা ত্যাগ করার কথা রয়েছে।