বাংলাদেশ বিমানের টিকেট বিক্রয় ব্যবস্থাপনা আরো আধুনিক করার পরামর্শ

ঢাকা, ৩০ এপ্রিল ২০১৮ : বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভায় আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ রুটে বাংলাদেশ বিমানের টিকেট বিক্রয় ব্যবস্থাপনা আরো আধুনিক করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।
কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খানের সভাপতিত্বে আজ সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সভায় এ পরামর্শ দেয়া হয়।
কমিটির সদস্য অধ্যাপক মোঃ আলী আশরাফ, তানভীর ইমাম, মোঃ নজরুল ইসলাম চৌধুরী, কামরুল আশরাফ খান এবং সাবিহা নাহার বেগম সভায় অংশগ্রহণ করেন।
সভায় বেসরকারি এয়ারলাইন্সগুলোর সার্বিক কার্যক্রম,হযরত শাহ্জালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর আধুনিকীকরণ পরিকল্পনা এবং বিদেশী পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের ভূমিকা সংক্রান্ত বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।
সভায় বিমান বন্দর সমূহের জমি অধিগ্রহণের ক্ষেত্রে দ্রুত নিষ্পত্তি ও আইনগত বিষয়ে মন্ত্রণালয় এবং এটর্নী জেনারেলের সাথে যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করা হয়।
সভায় বিমানের লাগেজ হ্যান্ডলিং ব্যবস্থা উন্নত করা, সিডিউল পরিবর্তন হলে দ্রুত সময়ের মধ্যে যাত্রীদেরকে অবহিত করা এবং কার্গো বিমানে আগত মালামালগুলো দ্রুত খালাস করার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে আলোচনা করে বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে সুপারিশ করা হয় ।
সুষ্ঠুভাবে ২০১৮ সালের হজ্জযাত্রী পরিবহনের লক্ষ্যে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সাথে সমন্বয় করে ট্রাভেল এজেন্সীগুলোকে সম্পূর্ণ মূল্য পরিশোধ সাপেক্ষে বিমানের টিকেট বিক্রয় করার জন্য সভায় পরামর্শ দেয়া হয়। ঈশ্বরদী বিমান বন্দরে সপ্তাহে ২ থেকে ৩ দিন ফ্লাইট পরিচালনা করতে কমিটি থেকে সুপারিশ করা হয়।
বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের কার্যক্রমগুলো কমিটির সদস্যদেরকে অবহিত করা এবং বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনে ২০ অথবা ২৫ বছর দৈনিক ভিত্তিতে কর্মরত কার্যসহকারীদের পর্যায়ক্রমে চাকরিতে স্থায়ীকরণ করার বিষয়ে কমিটি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করে।
সভায় চট্রগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের উন্নয়নমূলক কার্যক্রম পরিদর্শন করে আগামী ১ মাসের মধ্যে কমিটিতে প্রতিবেদন দিতে মোঃ নজরুল ইসলাম চৌধুরীকে আহবায়ক এবং সাবিহা নাহার বেগমকে সদস্য করে একটি সাব-কমিটি গঠনের সুপারিশ করা হয়।
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব,বিমান পরিচালনা পর্ষদ,সিভিল এভিয়েশন ও পর্যটন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যানগণ,বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহীসহ মন্ত্রণালয় এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।