বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রশংসা করেন কানাডার রাষ্ট্রদূত

ডেস্ক রিপোর্ট: পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশে নিযুক্ত কানাডার রাষ্ট্রদূত বেনোয়া প্রেফন্তে। সাক্ষাৎকালে তারা পারস্পরিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়ে মতবিনিময় করেন। এ সময় কানাডার রাষ্ট্রদূত বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অগ্রগতির ভূয়সী প্রশংসা করেন।

আগারগাঁওয়ে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রীর নিজ দপ্তরে এ বৈঠক হয়।

পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, কানাডা বাংলাদেশের এক অকৃত্রিম বন্ধু। তিনি বাংলাদেশের অগ্রগতির বিভিন্ন তথ্য উপস্থাপন করে বলেন, বর্তমান সরকারের গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ অভাবনীয় অগ্রগতি অর্জন করেছে। সরকারের বিনিয়োগবান্ধব বিভিন্ন কর্মসূচির ফলে বাংলাদেশ বিনিয়োগের জন্য অত্যন্ত লাভজনক দেশে পরিণত হয়েছে। সরকারের বিনিয়োগবান্ধব নীতি কাজে লাগিয়ে অর্থনৈতিক উন্নয়নে বাংলাদেশে আরও বিনিয়োগের ওপর গুরুত্বারোপ করে কানাডার বিনিয়োগের আহ্বান জানান।

বেনোয়া প্রেফন্তে বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অগ্রগতির প্রশংসা করেছেন জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী শিগগির বাংলাদেশের সফরে আসবেন। কানাডা সরকার পিপিপিভিত্তিক বিনিয়োগে আগ্রহী। বাংলাদেশের বিভিন্ন অবকাঠামোগত উন্নয়নে কানাডা সরকারের আগ্রহের কথাও তিনি ব্যক্ত করেন। নিজ দেশে নিপীড়নের মুখে বাংলাদেশে চলে আসা মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের বিষয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেন কানাডার রাষ্ট্রদূত। দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক এগিয়ে নিতে বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনকালে নিজের ভূমিকা রাখার কথাও বলেন কানাডার রাষ্ট্রদূত।

মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আশ্রয় দেয়ার কথা উল্লেখ করে তাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মহানুভবতার কথাসহ সরকারের সাহসী উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন পরিকল্পনা মন্ত্রী। তিনি দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক অংশীদারিত্ব বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তারা আশা প্রকাশ করেন, অর্থনীতির সম্ভাবনাময় খাতসমূহের উন্নয়নে দুই দেশের অব্যাহত অংশীদারিত্ব ভবিষ্যতে আরও বেগবান হবে।