বাঁধ মেরামত ও ত্রাণ বিতরণে দুর্নীতির প্রতিবাদে সমাবেশ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার হাওর রক্ষা বাঁধ মেরামত ও ত্রাণ বিতরণে দুর্নীতির প্রতিবাদে বিশ্বম্ভরপুরে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার দুপুরে উপজেলা সদরে ‘হাওর বাঁচাও কৃষক বাঁচাও আন্দোলন’ ও ‘সচেতন নাগরিক কমিটি’র ব্যানারে এ সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য দেন হাওর বাঁচাও কৃষক বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি মহিবুর রহমান, সহ-সভাপতি অলিমান, নজরুল ইসলাম মাস্টার, সাবেক ইউপি সদস্য সুলেমান মিয়া, রাধাকান্ত, শ্রমিক নেতা আবুল কালাম, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে ক্ষতিগ্রস্থ খরচার হাওর ও আঙ্গারুলি সনার হাওরের বাঁধ মেরামতসহ ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম হয়েছে দাবি করে মোট ২ লাখ ৯২ হাজার ৩৭১ টাকার বিল অনুমোদন সহ উপজেলা পরিষদের রাজস্ব তহবিলের সংশ্লিষ্ট খাত হতে পরিশোধের জন্য সিদ্ধান্ত নেয়ার বিষয়টি সঠিক হয়নি। এসব বিষয় যাচাই না করে উপজেলা পরিষদের মে/২০১৭ মাসে ৩৭তম মাসিক নিয়মিত সাধারণ সভায় সিদ্ধান্তে বিষয়টি তদন্ত করতে হবে। ত্রাণ বিতরণের তথ্যটি সম্পূর্ণ ভুয়া।’ বিষয়টি তদন্তের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট দাবি জানান বক্তারা।
উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সুলেমান তালুকদার দাবি করে বলেন, ‘ত্রাণ বিতরণ হয়েছে, শ্রমিকদের চিড়া মুড়ি খাওয়ানো হয়েছে।’
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানিয়া সুলতানা বলেন, ‘২ লাখ ২৬ হাজার টাকা বিল দেয়া হয়েছে। উপজেলা পরিষদের রাজস্ব খাত হতে ১ লাখ ২৬ হাজার টাকা, সুনামগঞ্জ শহরের ব্যবসায়ী জিয়াউল হক-এর অনুদান হতে ১ লাখ টাকা দেয়া হয়েছে বাঁধ মেরামত বাবদ। ত্রাণ বিতরণ হয়নি। আমি পুরো টাকা ছাড় দিচ্ছি না, কাজ যেটুকু হয়েছে সে পর্যন্ত বিল পরিশোধ করেছি।’
উপজেলা চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ বলেন, ‘আঙ্গারুলি সনার হাওরে পানি সেচ করায় কিছু তেল খরচ হয়েছে। বাঁধ মেরামত হয়নি।