বন্যা নয়, জনরোষের ভয়ে কেক কাটেননি খালেদা: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক : উত্তরাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতিতে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া তার জন্মদিন উদযাপন করেননি বলে জানান হয়েছে দলের পক্ষ থেকে। তবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বন্যা নয়, জনরোষের ভয়ে ভুয়া জন্মদিন পালন করেননি খালেদা জিয়া।জাতীয় শোক দিবস স্মরণে শনিবার রাজধানীতে যুবলীগের এক আলোচনায় এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন,‘সুযোগ পেলে তারা কেক কাটতো (১৫ আগস্ট) এবং জন্মদিনের উৎসব পালন করতো। এতে কোন সন্দেহ নাই।’বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দ্বিতীয় বছর থেকে ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার দিন ঘটা করে জন্মদিন পালন শুরু করেন। তবে দুই বছর আগে ১৯৯১ সালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে তার জন্মদিন হিসেবে অন্য একটি তারিখ জানান হয়েছিল।আওয়ামী লীগ অভিযোগ করে আসছে, বঙ্গবন্ধুর হত্যার দিন সমর্থকদেরকে নিয়ে উল্লাস করতেই মিথ্যা জন্মদিন সাজিয়েছেন খালেদা জিয়া।
তবে গত দুই বছর ধরে ১৫ আগস্ট জন্মদিনে কেক কাটার আনুষ্ঠানিকতা বাতিল করেছেন খালেদা জিয়া। ২০১৬ সালে সরকারবিরোধী আন্দোলনে ‘গুম, খুনে’র শিকারদের প্রতি সহমর্মিতা দেখিয়ে এবং চলতি বছর বন্যার কথা বলে এই আনুষ্ঠানিকতা বাতিলের কথা জানিয়েছে বিএনপি। তবে এই দিনে দলীয় কার্যালয়ে মিলাদের আয়োজন করে দলটি। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘যারা ১৫ আগস্ট ভুয়া জন্মদিনের কেক কেটে আমাদের হৃদয়ে এবং অনুভূতিতে আঘাত করে তাদের সাথে কেন সংলাপ করবো? তারা বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনাকে বিদ্বেষের চোখে দেখে।’বিএনপি উত্তরাঞ্চলে কোন ত্রাণ দেয়নি অভিযোগ করে কাদের বলেন, ‘আমি দুর্গত এলাকার কোন মানুষ বলতে পারে নাই বিএনপি ত্রাণ নিয়ে কোন এলাকায় আছে। ফটোসেশন করে চলে এসে এখন ঢাকায় এসে সরকারের বিরুদ্ধে বিষেদগার করছেন।’‘তারা ঘরে বসে প্রেস ব্রিফিং করে, নালিশ করে আর কান্নাকাটি করে। রাজনীতিতে দুর্বল ও কাপুরুষের অবলম্বন হলো কান্নাকাটি।