বঙ্গভবনে ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার সঙ্গে সাক্ষাতের দুই দিনের মাথায় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে বৈঠক করলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ঘণ্টাখানেকের বৈঠকে ষোড়শ সংশোধনীর রায়ের বিষয়ে দলের অবস্থান রাষ্ট্রপ্রধানের কাছে তুলে ধরেছেন ক্ষমতাসীন দলের নেতা।সোমবার দুপুরের আগে আগে ওবায়দুল কাদের বঙ্গভবনে যান। বেল ১২টা থেকে ঘণ্টাখানেক সেখানে ছিলেন তিনি। সেখান থেকে বের হওয়ার পর সাংবাদিকদেরকে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির কাছে দলের অবস্থান জানতে এসেছি। তাঁর সাথে কথা হয়েছে।ষোড়শ সংশোধনীর রায়ের বিষয়ে দলের অবস্থান রাষ্ট্রপতিকে জানান হয়েছে। আগে শনিবার রাতে তিনি প্রধান বিচারপতির সঙ্গে দুই ঘণ্টা বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণার রায়ে আদালতের পর্যবেক্ষণের বিষয়ে আওয়ামী লীগের অবস্থান জানিয়ে আসেন তিনি। পরদিন ওবায়দুল কাদের বলেন, আরও আলোচনা হবে। আর আলোচনা শেষ না হওয়ার আগে তিনি কোনো মন্তব্য করতে চান না। সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণার রায়ের পর্যবেক্ষণে শাসন ব্যবস্থা, সংসদ, রাজনৈতিক সংস্কৃতিসহ নানা বিষয়ে বিরূপ মন্তব্য করা হয়। বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অবমাননার অভিযোগ এনে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে আওয়ামী লীগ।বৃহস্পতিবার রাতে দলের সভাপতিমণ্ডলী ও সম্পাদকমণ্ডলীর বৈঠকে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই রায় পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পর্যালোচনা করতে দলের দুই নেতাকে দায়িত্ব দেন। সেই সঙ্গে রায়ে সংবিধান অবমাননা করা হয়েছে কি না, তা খতিয়ে দেখে সংবিধান অবমাননার মামলা করার চিন্তার কথাও উঠে আসে এই বৈঠকে।ওই বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী এমন কথাও বলেন যে, ‘সমস্যা নাই। আমাদের হাতে অনেক কিছুই আছে, দেখা যাবে।’রবিবার এক সংবাদ সম্মেলনে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, এই রায়ে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করা হয়েছে। এবং এই রায় খতিয়ে দেখার এখতিয়ার আছে রাষ্ট্রপতির।