বঙ্গবন্ধুর জীবনভিত্তিক চলচ্চিত্রের নির্মাতা বেনেগাল

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ প্রযোজনায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মিত হতে যাচ্ছে। চলচ্চিত্রটির পরিচালক হিসেবে থাকছেন ভারতের প্রখ্যাত চলচ্চিত্রকার শ্যাম বেনেগাল।

নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছিলেন বেনেগাল। প্রখ্যাত এই চলচ্চিত্রকার পদ্মশ্রী, পদ্মভূষণ, দাদা সাহেব পালিনী, এএনআর ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন।

সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে এসব কথা জানান তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, গত বছরের ৮ এপ্রিল নয়া দিল্লিতে বাংলাদেশ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে দুই পক্ষের মধ্যে চুক্তি সই হয়। চুক্তি অনুসারে দুই দেশের যৌথ প্রযোজনায় ‘বঙ্গবন্ধুর জীবনভিত্তিক’ চলচ্চিত্র ও ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ওপর একটি প্রামাণ্য চিত্র নির্মাণ করা হবে।

তারানা জানান, চুক্তি অনুসারে বাংলাদেশের ১০ জন ও ভারতের নয়জন সদস্য নিয়ে যৌথ কমিটি গঠিত হয়। গত ৯ জুলাই প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ভারত শ্যাম বেনেগাল, গৌতম ঘোষ ও কৌশিক গাঙ্গুলীর নাম নির্মাতা হিসেবে প্রস্তাব করে। আর বাংলাদেশের পক্ষ থেকেও তিনজন স্বনামধন্য পরিচালকের নাম প্রস্তাব করা হয়। তবে নির্মাতা হিসেবে ম্যাম বেনেগালের নাম চূড়ান্ত করা হয়েছে।

ছবির নির্মাণ কাজ কবে নাগাদ শেষ হতে পারে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, আমাদের লক্ষ্য বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীতে (২০২১ সাল) শেষ করা। তবে মানের ব্যাপারে আমরা সমঝোতা করব না। তার চেয়ে এক দুই বছর বেশি লাগলেও আমরা তাদের সময় দেবো। কারণ ছবিটি যাতে আন্তর্জাতিক মানের হয়।

চলচ্চিত্রটি নির্মাণে উভয় দেশই খরচ বহন করবে। তবে বাংলাদেশ বেশি খরচ বহন করবে। ন্যূনতম ৮০ শতাংশ বাজেট বাংলাদেশ বহন করতে চায়।

তারানা হালিম বলেন, চলচ্চিত্রের পাণ্ডুলিপিটি বঙ্গবন্ধুর পরিবারকে দেখিয়েই চূড়ান্ত করা হবে। ছবি নির্মাণে বিশেষজ্ঞ টিমে ইতিহাসবিদ থাকবেন, যিনি বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক ব্যক্তি-ইতিহাস জানেন। এছাড়াও বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক ঘনিষ্ঠ সহচর ও চলচ্চিত্র বিষয়ে অভিজ্ঞতাসম্পন্ন এমন দুজন থাকবেন এই বিশেষজ্ঞ টিমে। তবে পরিচালকের পূর্ণ স্বাধীনতা থাকবে।

তারানা হালিম আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে অনেক আগে চলচ্চিত্র তৈরি হওয়া উচিত ছিল। আমরা চাই একটি আন্তর্জাতিক মানের চলচ্চিত্র নির্মাণ হোক। আজ থেকে দুইশ বা তিনশ বছর পরও যেন সেই চলচ্চিত্রের মাধ্যমে প্রজন্মগুলো বঙ্গবন্ধুকে জানতে পারে। একজন পিতা, রাজনীতিবিদ, স্বাধীনতার ঘোষক এবং রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে বর্ণনা ফুটে উঠবে চলচ্চিত্রে।

এই চলচ্চিত্রে কারা অভিনয় করবেন- তা পরিচালক ঠিক করবেন বলে জানান তারানা হালিম। তিনি বলেন, আমরা কারো নাম প্রস্তাব করছি না। অভিনেতা অভিনেত্রী বাংলাদেশ থেকে নেয়ার প্রয়োজন রয়েছে। তবে তারা যদি মনে করেন অন্য রাষ্ট্র থেকে নেবেন তাহলে নিতে পারেন।