ফেভারিট বেলজিয়ামের প্রতিপক্ষ আজ পানামা

ক্রীড়া ডেস্ক : আজ মাঠে নামছে অন্যতম ফেভারিট বেলজিয়াম। ‘জি’ গ্রুপের এই ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ পানামা। খেলা শুরু বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায়।

বেলজিয়ামকে বলা হচ্ছে এই বিশ্বকাপে খেতাবের অন্যতম দাবিদার। সেখানে তাদের প্রতিপক্ষ পানামা যে অনেকটাই পিছিয়ে তা ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে চোখ রাখলেই স্পষ্ট হয়ে যায়। তিন নম্বর বেলজিয়ামের পাশে ৫৫ নম্বরে থাকা পানামা নেহাতই ম্লান!

ফুটবল পণ্ডিতরা এখন বলছেন, বেলজিয়াম পানামাকে কয়টা গোল দেয় সেটাই দেখার। তবে বেলজিয়াম দলটায় একেবারেই সমস্যা নেই তা কিন্তু নয়। বিশেষ করে রক্ষণে। পানামা ম্যাচে খেলতে পারছেন না টোমাস ভারমায়েলেন ও ভিসসেন্ট কোম্পানি। কিন্তু প্রতিপক্ষ এতটাই দুর্বল যে তাঁদের অনুপস্থিতি নিয়ে খুব বেশি চিন্তায় থাকার কথা নয় বেলজিয়াম কোচ রবের্তো মার্তিনেসের। তার উপর বিশেষজ্ঞদের মতে বর্তমান বেলজিয়াম দলটা ফুটবলে তাদের স্বর্ণযুগের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে।

তার একটা বড় কারণ নিশ্চিত ভাবেই এডেন হ্যাজার্ড ও কেভিন দ্য ব্রুইনের মতো তারকার উপস্থিতি। এই দু’জনের জন্যই তাঁদেরই সম্ভাব্য গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন ধরা হচ্ছে এখন থেকেই। এই গ্রুপের (জি) অন্য বড় নাম যদিও ইংল্যাল্ড তবু বেলজিয়ামকে নিয়ে আলোচনাই লোকের মুখে মুখে।

বেলজিয়ামের কোচ মার্তিনেস বলেছেন,‘আমি দলের কাছে একটা জিনিসই চাইব। ফুটবলটা কেমন খেল দেখাও। বিশ্বকাপে কেমন খেল দেখানোর দরকার নেই।’তিনি আরো বলেছেন,‘আমার দলের ফুটবলারদের দেখে আমি নিজেই উত্তেজিত বোধ করি। কী ভাবে ওরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা পাগলের মতো খাটছে! ওদের দেখে মনে হয় শুধুই যেন প্রতিযোগিতা শুরু হওয়ার অপেক্ষা। দেশের মানুষদের খুশি করতে ওরা এতটা উন্মুখ, যে বলার নয়।’

মার্তিনেসের কোচিংয়ে বেলজিয়ামের ফল ভাল বললেও কম বলা হবে। ব্রাসেলস-এ তারা শেষ প্রস্তুতি ম্যাচেও কোস্টারিকে ৪-১ গোলে হারিয়ে এসেছে। শেষ ১৯ ম্যাচে তারা অপরাজিত। তাও টানা প্রায় দু’বছর ধরে জিতে যাচ্ছে।

বেলজিয়াম দলের আর এক ফরোয়ার্ড দ্রিস মার্টেন্স বলেছেন,‘ মনে হয় আমাদের সবাই জানে যে ওরা কতটা শক্তিশালী। আশা করি এই প্রতিযোগিতাতেও আমরা সেটা প্রমাণ করতে পারব।’