ফকিরহাটে প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ ৮ জন মারাত্মক আহত

মান্না দে, ফকিরহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার মৌভোগ পশ্চিমপাড়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় ৩ নারীসহ ৮ জন আহত হয়েছে। আহতদের প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয় পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ৫ জনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে বৃদ্ধা শাহিনা বেগমের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে।

স্থানীয় ও ভুক্তভোগীদের নিকট থেকে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে নাজমুল শেখ নামের মৎস্য ব্যবসায়ী একটি পিকআপে সাদা মাছ এনে মৌভোগ পশ্চিপাড়ার একটি সড়কের পাশে পিকআপ রেখে মাছ নামানোকে কেন্দ্র করে একই এলাকার হোসেন আলী শেখের সাথে নাজমুলের বাকবিতন্ধা সৃষ্টি হয়।

পরবর্তীতে এরই জের ধরে এদিন বিকেল সাড়ে ৫ টায় হোসেন আলী, তার সহযোগী ফজলু শেখ, নুর ইসলাম শেখ, নুরনবী শেখ, হাসান শেখ, আরিফ শেখ, মনিরুল শেখ, বাটুল শেখ সহ ১০/১২ মিলিত হয়ে দাঁ, লাঠি ও লোহার রড দিয়ে আকস্মিক অতর্কিতভাবে হামলা চালায় নাজমুল শেখের পরিবারের উপর। এসময় ঠেকাতে আসা লোকজনের উপরও তারা হামলা চালায়।

এতে মারাত্মক জখম হয়েছে নাজমুল শেখ (৩০), ভাই শরিফুল ইসলাম (৩৩) ও তরিকুল শেখ (৩৬), বৃদ্ধা মা শাহিনা বেগম (৬০), রাজ আলী শেখ (৪৫), এর মাতা ছামেলা বেগম (৭০), সাইফুল শেখ (৩৫), আছমা বেগম (৩৮)।

এদিকে, এ ঘটনায় অত্র এলাকায় উভয়পক্ষের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন মুহুর্তে পুনরায় বড় ধরণের সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে বলে সূত্র জানা গেছে।

খবর পেয়ে অফিসার ইনচার্জ আবু জাহিদ শেখের হস্তক্ষেপে মৌভোগ স্থানীয় ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ব্যাপারে নাজমুলের ভাই শরিফুল ইসলাম নিজে বাদী হয়ে (এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছিল) সংশ্লিষ্ট মডেল থানায় লিখিত আভিযোগ করেছে। তবে ঘটনার সাথে জড়িতরা সকলে গাঁ ঢাকা দিয়েছে। তাদেরকে আটকের জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ থানা সূত্রে জান যায়।