ফকিরহাটে গুরুত্বপূর্ণ তিনটি সড়ক চলাচলের জন্য অযোগ্য

মান্না দে, ফকিরহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : বাগেরহাটের ফকিরহাটে জনবহুল ও গুরুত্বপূর্ণ তিনটি সড়ক চলাচলের জন্য অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এ তিনটি সড়ক এখন মরণ ফাঁদে পরিনত হয়ে পড়েছে। সড়কগুলি অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ হলেও তা কয়েক বছরেও মেরামত বা সংস্কার না করার ফলে বাড়ছে দূর্ঘটনা। অতিদ্রুত সড়কগুলি মেরামত করা না হলে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ও প্রাণহানীর ঘটনা ঘটে যেতে পারে। এব্যাপারে স্থানীয় সচেতন জনগণ স্থানীয় সরকার বিভাগের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

জানা গেছে, উপজেলার কাটাখালী বাসস্ট্যান্ড হতে বাইনতলা একটি জনবহুল গুরুত্বপূর্ণ সড়ক। এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার জনগণ বদিয়াঘাটা উপজেলার আমিরপুর, ভাতগাতী, লক্ষিখোলা, ঝিনাইখালী, নিকলাপুর, নারায়নখালী ও রুপসা উপজেলার জাবুসা ইলাইপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় চলাচল করে থাকেন। সেই সুবাদে ওপারের সাথে ব্যাবসায়ীক যোগাযোগটা এখানে একটু বেশিই। কিন্তু পরিতাপের বিষয় হচ্ছে, গুরুত্বপূর্ণ সড়ক হলেও চির অবহেলিত হয়ে পড়ে রয়েছে। সড়কগুলোর অবস্থা এমন যে চলাচল তো দূরের কথা পায়ে হেঁটে চলাচল করাও অসম্ভব। তার পরেও জনগণ নিরুপায় হয়ে চলাচল করতে বাধ্য হয়।

স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা ইদ্রিস আলী বলেন, দামবাড়ীর মানিক দামের বাড়ীর সামনে, নিতাই দত্তের বাড়ীর সামনে ও তাপস চন্দ্রের বাড়ীর সামনে বড়বড় গর্ত রয়েছে। সেই গর্তে পড়ে বহুলোক গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এছাড়া পিলজংগ ইউনিয়নের দেশের একমাত্র মহিষ প্রজণন ও উন্নয়ন খামারের সামনে দিয়ে কাঠাঁলতলা সড়কটির অবস্থা একই ধরনের। বেতাগা পশুর হাটটি দক্ষিন পশ্চিমাঞ্চলের মধ্যে শ্রেষ্ঠ একটি পশুরহাট। সেই সুবাদে এখানে শুক্র ও সোমবার সাপ্তাহিক হাট বসে। কিন্তু সড়কগুলো এত শোচনীয় অবস্থা যে ট্রলি অটোভ্যান, নছিমন-করিমন চলাচল তো দূরের কথা মানুষজনও চলাচল করতে পারছে না।

তিনি বলেন, বাহিরদিয়া ইউনিয়নের পালেরহাট ভায়া গাবখালী সড়কটিরও একই অবস্থা। স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীরা সাইকেল চালিয়ে বা পায়ে হেঁটে কিভাবে গন্তব্যে পৌঁছাবে তারও উপাই নেই। স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তরের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা বারবার সড়কটি দিয়ে চলাচল করলেও তাদের নজরে আসেনা। এঅবস্থায় স্থানীয় ও বহিরাগত জনসাধারণকে পোহাতে হচ্ছে নানা রকমের দুর্ভোগ।

এব্যাপারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বেতাগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান স্বপন দাশ এর সাথে আলাপ করা হলে তিনি বলেন, উপরোক্ত তিনটি সড়ক ছাড়াও আরো দুইটি বড়বড় সড়কের বিষয়ে উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের কাছে একটি তালিকা করে তার আইডি নম্বার দিয়ে প্রদান করা হয়েছে। যার ফলাফল অচিরেই পাওয়া যাবে।