ফকিরহাটে উত্তপ্ত আবহাওয়ায় জ্বলছে মানুষ, নানা রোগের প্রাদুর্ভাব

মান্না দে, ফকিরহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার সর্বত্র এখন তীব্র তাপদাহ প্রবাহিত হচ্ছে। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে গরমের তাপদাহে কাহিল হয়ে পড়ছে মানুষ। প্রতিবছর সাধারণত এই মৌসুমে তাপদাহ শুরু হয়। এই সময় আসলে তাপমাত্রা ক্রমেই বৃদ্ধি পেতে থাকে। সেক্ষেত্রে এবার এর ব্যাতিক্রম হয়েছে। তুলনামূলকভাবে এবছর গরমের তীব্রতা বেড়েছে। ফলে প্রচন্ড গরমে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে ফকিরহাট ও আশ-পাশ অঞ্চলের মানুষ।

বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধরা দুর্বিসহ দিন অতিবাহিত করছে। মানুষের পাশাপাশি গবাধী পশু-পাখিরা হাঁস-ফাঁস করছে। ঘরে-বাইরে কোথাও যেন একটু স্বস্তি নেই। আগুনমুখো আবহাওয়ার কারনে খাঁ খাঁ করছে রাস্তা-ঘাট। দুপুর গড়াতেই রাস্তা-ঘাট ও মাঠ জনশুন্য হয়ে পড়ে। একমাত্র কর্মজীবি মানুষ ছাড়া কেহই খুব জরুরী কাজ ছাড়া বাহিরে বের হচ্ছেন না।

এদিকে ভ্যাপসা গরমের ফলে কদর বেড়েছে রাস্তার পাশে ও বিভিন্ন দোকানে সরবত, আখের রসসহ ঠান্ডা পানীয় জাতীয় খাবারের উপর। অনেকে খোলা বাজারের পানীয় পান করছে। বৃদ্ধি পেয়েছে বিভিন্ন গরম জনিত রোগের প্রাদুর্ভাব। ডায়রিয়া, জ্বর, সর্দি-কাশিসহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু-কিশোরসহ অনেকেই।

বিশেষ করে শিশুদের নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট, ডায়রিয়া, জ্বর, আমাশয়, সর্দি, কাশিসহ বিভিন্ন উপসর্গে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন চিকিৎসা কেন্দ্রে রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে দিন দিন।

এ ব্যাপারে চিকিৎসকদের পরামর্শ মোতাবেক জানা যায়, হালকা ও পাতলা সুতি কাপড় পরা, খোলা খাবার থেকে এড়িয়ে চলা। অতিরিক্ত গরমে ঘামের ফলে হিট-স্ট্রোক ও ডাইরিয়ার প্রকোট বৃদ্ধি পাওয়ার আশংকা রয়েছে। তাই বেশী বেশী তরল খাবার খাওয়াসহ স্যালাইন, লেবুর সরবত ও ডাবের পানি খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

কয়েক দিন ধরে অব্যাহত তাপদাহের ফলে খেটে খাওয়া মানুষের কষ্টের সিমা চরমে পৌঁছেছে। অপরিদিকে, প্রচন্ড গরমের ফলে গাছের পাতা ও ফল শুকিয়ে ও ঝরে যাচ্ছে। অন্যদিকে, পুকুর ও খাল-বিলের পানি শুকিয়ে যাচ্ছে। এমন অবস্থা চলতে থাকলে জনদুভোর্গ দিন দিন বৃদ্ধি পাবে বলে আশংকা করছেন অভিজ্ঞ মহল।

অপরদিকে, গরমের সাথে পাল্লা দিয়ে চলছে পল্লী বিদ্যুতের লোড শেডিং। দিনের বেলা ভ্যাপসা গরমের কারনে বাহিরে বেরলেই অধিক ঘামে ক্লান্ত হয়ে পড়ছেন সাধারণ মানুষ। একটু সুযোগ পেলেই প্রশান্তি খুঁজে বেড়াচ্ছে, কোথাও একটু ছায়া দেখলেই জিরিয়ে নিচ্ছেন শরীরটাকে। ভ্যাপসা গরমে ও ঘন ঘন লোড শেডিং এর ফলে কদর বেড়েছে পাখা বিক্রেতাদের।