প্রিয়ভাষিণীর অবদান চিরস্মরণীয় থাকবে: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : বীরাঙ্গনা ভাস্কর ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণীর মৃত্যুতে শোক ও গভীর দুঃখ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশ এই মুক্তিযোদ্ধার অবদান চিরদিন মনে রাখবে।

মঙ্গলবার প্রখ্যাত মানুষটির মৃত্যুর পর এক শোক বার্তায় এই কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি মুক্তিযুদ্ধে ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণীর ভূমিকা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। বলেন, ‘দেশ ও জাতি তাঁর অবদান চিরদিন মনে রাখবে।’

মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি বাহিনীর গণহত্যা ও ধর্ষণে ভুক্তভোগীদের একজন এই ভাস্বর। যুদ্ধের পর যারা নারী নির্যাতনের বিষয়টি সামনে নিয়ে এসেছিলেন ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী তাদের একজন।

বীরাঙ্গনাদেরকে বর্তমান সরকার মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। প্রিয়ভাষিণীকে এই স্বীকৃতি দেয়া হয় ২০১৬ সালের ১১ আগস্ট। এর আগে ২০১০ সালে তিনি বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান স্বাধীনতা পদক পান।

আজীবন স্বাধীনতার চেতনা প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে যাওয়া প্রিয়ভাষিণী বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন। আজ সকালে হঠাৎ করেই হৃদরোগে আক্রান্ত হলে প্রিয়ভাষিণীকে ল্যাব এইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর চিকিৎসকদের চেষ্টা সত্ত্বেও তাঁকে বাঁচানো যায়নি।

প্রধানমন্ত্রী মরহুমার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানান।