প্রথম হাতির সাবক জন্ম শ্রীপুরে বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্কে

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি : শ্রীপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কে প্রথমবারের মতো আবদ্ধ পরিবেশে মুক্তিরানী নামের হাতি বাচ্চা জন্ম দিয়েছে। গতকাল রোববার রাতে বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্কের এভিয়্যারিতে বাচ্চাটির জন্ম হয়। সাফারী পার্কে আবদ্ধ পরিবেশে বন্য হাতির সাবকের জন্ম এটি দেশের জন্য বিরল ঘটনা।
পার্ক সূত্রে জানা গেছে, ২০১৩ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কে ২টি পুরুষ ও ৪টি মাদী বন্য হাতি এনে পোষ মানানো হয়। পার্কের ওয়াইল্ড লাইফ সুপারভাইজার মো: সরোয়ার হোসেন খান জানান, ১৯৭১ সালে হাতিটি জন্ম নেয়ায় তার নামকরণ করা হয়েছে মুক্তিরাণী। হাতিটিকে ২০১৫ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কে আনা হয়। ১৮-২০ মাস গর্ভ ধারনের পর রাত পৌনে ১১ টায় সাবকের জন্ম দিয়ে বিরল ঘটনার সৃষ্টি করেছে মুক্তি রানী।
সরেজমিনে দেখা যায়,মা হাতিটি বাচ্চাকে আড়াল করে রাখতে চাইছে। কেউ কাছে যেতে চাইলেই মা হাতি তেড়ে আসে। প্রচন্ড রোদে একটি ঝুপে বাচ্চাকে রেখে পাহাড়া দিয়ে রাখছে মা হাতিটি।
পার্কের ভেটেনারি সার্জন নিজাম উদ্দিন চৌধুরী জানান, নতুন সাবক নিয়ে পার্কের বর্তমানে হাতি পরিবারে সদস্য সংখ্যা ৭। আগেও পার্ক বা চিড়িয়াখানায় কোন হাতি সাবক জন্ম নেয়নি। সাবকটির ওজন প্রায় ৬০ কেজি। সূত্র মতে হাতি সাধারণ চার-পাঁচ বছর পর একটি করে বাচ্চা প্রসব করে থাকে। হাতি সাবকরা সাধারনত সাড়ে তিন থেকে চার বছর পর্যন্ত মায়ের দুধ পান করে থাকে।
পার্কে সাবক সহ মা হাতিটিকে আলাদা করে রাখা হয়েছে। সাবকটি রয়েছে মায়ের তত্ত্বাবধানে । পার্ক কর্তৃপক্ষ সার্বক্ষনিক ভাবে মা হাতি ও সাবকটির প্রতি নজরদারী রাখছে। হাতিটির কাছে পর্যটকদের যাতায়াত রয়েছে নিয়ন্ত্রিত।
মা হাতিটিকে প্রতিদিন ২০ কেজি কলাগাছ, ৫০ কেজি মিষ্টি কুমড়া, ৫০ কেজি আখ, ১০ কেজি গাজর, ৩ কেজি জাও (নরম ভাত) সহ ঘাস লতাপাতা খাবার দেওয়া হচ্ছে। প্রায় চার বছর পর থেকে সাবকটি স্বাভাবিক ভাবে প্রাকৃতিক খাবার খাওয়া শুরু করবে। মা হাতি যেন অপুষ্টিতে না ভোগে সে জন্য বিশেষ তদারকির ব্যবস্থা করা হয়েছে।
বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্কের বন্যপ্রাণি পরিদর্শক আনিসুর রহমান জানান, বর্তমানে মা ও নবজাতককে নিরাপত্তার জন্য দর্শনার্থীদের কাছ থেকে দূরে রাখা হয়েছে। বাচ্চাটি পরিণত হলেই সবার জন্য উন্মুক্ত করা হবে।
পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহাব উদ্দিন বলেন, কোন চিড়িয়াখানা বা সাফারী পার্কে আবদ্ধ পরিবেশে হাতি বাচ্চা প্রসবের ঘটনা বাংলাদেশে এটিই প্রথম। মা হাতি ও সাবক সম্পূর্ন ভাবে সুস্থ্য রয়েছে।