প্রথম পছন্দ আলোচনা, দ্বিতীয় পছন্দ সংগ্রাম: দুদু

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজনৈতিক সংকট সমাধানে বিএনপি আলোচনা চায় এমন মন্তব্য করে দলটির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, ‘আমাদের প্রথম পছন্দ আলোচনা, দ্বিতীয় পছন্দ আন্দোলন বা সংগ্রাম যাই বলেন সেটি।’সোমবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার লন্ডন সফর নিয়ে ‘অপপ্রচারের’ প্রতিবাদে এই মানববন্ধন আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন।গত ১৫ জুলাই লন্ডন সফরে যাওয়া খালেদা জিয়া মামলা থেকে বাঁচতে দেশ থেকে পালিয়ে গেছেন বলে মন্তব্য করে আসছেন ক্ষমতাসীন দলের নেতারা। তবে বিএনপি এসব বক্তব্যের সমালোচনা করে বলছে, খালেদা জিয়া অবশ্যই ফিরে আসবেন এবং দেশে ফিরেই তিনি নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের রূপরেখা দেবেন।খালেদা জিয়া সম্পর্কে সরকারি দলের নেতাদের বক্তব্যের সমালোচনা করে দুদু বলেন, “চিকিৎসার উদ্দেশ্যে লন্ডন গেছেন দেশনেত্রী। তাকে নিয়ে নানা ধরনের কথা বলা হচ্ছে, নানা অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। আমরা বলতে চাই, লন্ডনে দেশনেত্রীর সফর হচ্ছে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য, লন্ডন সফর হচ্ছে স্বৈরাচার পতনের জন্য, ফ্যাসিবাদ পতনের জন্য। লন্ডনে বেগম খালেদা জিয়া চিকিৎসার সময়গুলো তিনি ব্যবহার করতেছেন। এটা নিয়ে অপপ্রচার করার কিছু নাই।’সরকারকে বিএনপির সঙ্গে সংলাপে বসার আহ্বান জানিয়ে দুদু বলেন, ‘একাদশ নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক করতে সংলাপ না হলে আন্দোলনের কোনো বিকল্প থাকবে না। সংকট সমাধানে আমরা আন্দোলন চাই না, আমরা আলোচনা চাই।’
‘আমরা বলে দিতে চাই, বর্তমান সরকার যদি আলোচনা না করে বিরোধী দলের ওপরে নির্যাতন-হত্যা-গুম অব্যাহত রাখে তাহলে বিরোধী দল হিসেবে আমাদের আন্দোলনের পথই বেছে নিতে হবে, এর কোনো বিকল্প থাকবে না।’আওয়ামী লীগ কোনোভাবেই ক্ষমতায় টিকতে পারবে না দাবি করে দুদু বলেন, ‘এই দেশ ব্যক্তি ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতার দেশ, এই দেশ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে যারা স্বাধীনতার জন্য লড়াই করেছিলেন তাদের দেশ। এই দেশে ফ্যাসিবাদ ও গণতন্ত্রবিরোধী কোনো শক্তি কোনোকালে থাকতে পারে নাই, আগামী দিনেও থাকতে পারবে এটা কেউ বিশ্বাস করে না।’‘আজকে স্পষ্টভাষায় বলতে চাই, এ্ই সরকার বেশি দিন ক্ষমতায় নেই, এই অপশক্তির পতন হবে একটি গ্রহণযোগ্য, সকলের অংশগ্রহণমূলক প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটি নির্বাচনের মধ্য দিয়ে।’জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের সভাপতি আমির হোসেন বাদশার সভাপতিত্বে ওই মানববন্ধন পালন করা হয়।