প্রথমবারের মতো স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখার সুযোগ পাচ্ছে সৌদী আরবের নারীরা

স্টেডিয়ামে বসে ম্যাচ উপভোগের সুযোগ পাচ্ছে এবার সৌদী আরবের নারীরা। আগামী শুক্রবার একটি ফুটবল ম্যাচ দেখার জন্য প্রথমবারের মতো নারী দর্শকদের জন্য স্টেডিয়ামের দরজা খুলে দিচ্ছে সৌদী সরকার।

এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করে দেশটির তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, ‘আগামী ১২ জানুয়ারি আল-আহলি বনাম আল-বাতিনের মধ্যকার ম্যাচটি দেখতে পারবে নারী দর্শকরা। আর এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো স্টেডিয়ামে বসে ম্যাচ উপভোগের সুযোগ পাচ্ছে দেশটির নারীরা।’

বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে তারপরের দিন দ্বিতীয় ও ১৮ জানুয়ারি তৃতীয়বারের মতো নারীদের জন্য স্টেডিয়ামের সব দরজা উন্মুক্ত থাকবে।

সৌদী আরবের রাজধানী রিয়াদে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে উপস্থিত হয়ে মধ্যপ্রাচ্যের নারীরা নতুন এই স্বাধীনতা বেশ ভালোভাবেই উপভোগ করবে বলে সরকারের বিশ্বাস। পরের ম্যাচ দুটি যথাক্রমে জেদ্দাহ ও পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর দাম্মামে অনুষ্ঠিত হবে।

সৌদী আরবের রক্ষণশীল সরকারী আইনমতে নারীদের ক্রীড়া ক্ষেত্রে বিভিন্নভাবে বিভিন্ন আইন প্রয়োগ করে এতোদিন অনেকটা বন্দী করে রাখা হয়েছিল। বর্তমান সরকারের অভিভাকত্ব পদ্ধতি অনুযায়ী নারীদের পড়ালেকা, ভ্রমণ ও অন্যান্য বিভিন্ন কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করতে হলে স্বাভাবিক ভাবে পরিবারের পুরুষ সদস্য- বাবা, স্বামী কিংবা ভাইয়ের অনুমতির প্রয়োজন হয়। কিন্তু রক্ষণশীল রাজতন্ত্র হিসেবে পরিচিত সৌদী আরবের বর্তমান সরকার নারীদের স্বাধীনতার জন্য বেশ কয়েকটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। যার মধ্যে অন্যতম হলো নারীদের গাড়ী চালনার ক্ষেত্রে সব ধরনের বিধি নিষেধ সরকারের পক্ষ থেকে গত জুনে উঠিয়ে নেয়া হয়েছে।

সেপ্টেম্বরে রিয়াদের একটি স্টেডিয়ামে সৌদী আরবের জাতীয় দিবস উপলক্ষে হাজারো নারী উপস্থিত হয়েছিল। প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের উদ্যোগেই তেল সমৃদ্ধ সৌদী আরবে এই ধরনের উদ্যোগগুলো গ্রহণ করা হচ্ছে যা বিশ্বব্যাপী বেশ প্রশংসনীয় হয়েছে। বাসস।

Inline
Inline