পরিচালক ছাড়াই ‘হৃদয় জুড়ে’র শুটিং

বিনোদন ডেস্ক : প্রথমবারের মতো কোনো বাংলাদেশি ছবিতে অভিনয় করছেন কলকাতার নায়িকা প্রিয়াংকা সরকার। ছবির নাম ‘হৃদয় জুড়ে’। যেখানে তার বিপরীতে নায়ক রয়েছেন বাংলাদেশের নিরব। ছবিটি পরিচালনার দায়িত্বে রফিক শিকদার। গত বছরের মার্চে এফডিসিতে এটির শুটিং শুরু হয়েছিল। টানা ১৮ দিন বাংলাদেশে শুটিং শেষ করে কলকাতায় চলে যান নায়িকা প্রিয়াংকা সরকার। ফেরেননি আর।

অবশেষে দীর্ঘ ১১ মাস পরে আবারও শুরু হচ্ছে সেই ছবির শুটিং। তবে এবার শুটিং হবে কলকাতায়। আগামী ৬ জুলাই থেকে সেখানকার বিভিন্ন লোকেশন ছবির শুটিং হবে। তাও আবার পরিচালক রফিক শিকদারকে ছাড়াই। শুটিং স্পটে পরিচালক থাকতে পারবেন না- এমন শর্তেই শুটিং করতে রাজি হয়েছেন কলকাতার নায়িকা প্রিয়াংকা। প্রযোজকের অনুরোধে এবং তাদের আর্থিক ক্ষতির দিক বিবেচনা করে এমন শর্ত মেনেও নিয়েছেন পরিচালক।

একটা ছবি নির্মাণের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পরিচালকই সবকিছু দেখাশোনা করেন, নির্দেশনা দেন। কিন্তু কী এমন ঘটল যে, ছবির শুটিংয়ে পরিচালকই থাকতে পারবেন না। কারণটা অবশ্য অনেক আগে প্রিয়াংকাই সকলকে জানিয়েছিলেন। গত বছরের মার্চে ১৮ দিনের শুটিং শেষে কলকাতায় যাওয়ার আগে নায়িকা তার ফেসবুকে একটা স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন। সেখান থেকেই জানা যায়, পরিচালক রফিক শিকদারের সঙ্গে তার একটা বড় ধরণের ঝামেলা তৈরি হয়েছিল।

কী ছিল প্রিয়াংকার সেই স্ট্যাটাসে। তিনি লিখেছিলেন, ‘মার্চ মাসের প্রথম সপ্তাহে ঢাকা গিয়েছিলাম আমার প্রথম বাংলাদেশি ছবি ‘হৃদয় জু‌ড়ে’র শুটিং করতে। বাংলাদেশে আমার প্রযোজনা টিম, সহশিল্পীসহ সবার আতিথেয়তায় মুগ্ধ হয়েছিলাম। কিন্তু ছবির পরিচালক আমার সঙ্গে কাজের বাইরে অন্যান্য বিষয় নিয়ে গল্প করতে চাইতেন। সময়ে-অসময়ে নানা রকম মেসেজ করতেন। যেগুলো কাজসংক্রান্ত নয়! মানে বাড়তি অ্যাটেনশন পাওয়ার চেষ্টা। অনেক সময়েই আমি এর প্রতিবাদ করেছি। কিন্তু তিনি নিজেকে সংশোধন করেননি। বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায়ও তিনি আমাকে বারবার মেসেজ করতেন। বলতেন, তিনি নাকি আমাকে মিস করছেন! একসময় আমাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন!’
বুঝলেন তো ব্যাপারটা? এই ঘটনা নিয়েই তেতেছিলেন নায়িকা প্রিয়াংকা সরকার। নায়িকা ও পরিচালকের এই ঝামেলার কারণেই দীর্ঘ ১১ মাস ছবির শুটিং আটকে ছিল। সেসময় পরিচালক রফিক শিকদার বলেছিলেন, ‘আমি মনে করি, ভালোবাসা কোনো অন্যায় নয়। তাকে আমি ভালোবেসেছি, সে কথা জানিয়েছি। কিন্তু ভালোবাসার জন্য চাপ তো দিইনি।’

তবে শেষমেষ প্রযোজকের অনুরোধ ও নায়িকার শর্তে আবারও শুরু হতে যাচ্ছে ‘হৃদয় জুড়ে’র শুটিং। মূল পরিচালকের নির্দেশনায় শুটিং পরিচালনা করবেন সহকারী পরিচালক। কলকাতার অংশের শুটিং শেষে ঢাকায় একটি আইটেম গানের কাজ হলেই ছবির পুরো শুটিং শেষ হয়ে যাবে। আগামী কোরবানীর ঈদে ছবিটি বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়ার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে এটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

Inline
Inline