পরকীয়ার অভিযোগ নারীর চুল কেটে দিলেন আওয়ামী নেতা

অপরাধ ডেস্ক :

সিরাজগঞ্জে পরকীয়ার অভিযোগ গৃহবধূর মাথার চুল কেটে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে। পূর্ব শত্রুতার জেরে এ নির্যাতন বলে দাবি ভুক্তভোগী নারীর। ১৩ দিন পেরিয়ে গেলেও এ ঘটনায় এখনো কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

এদিকে অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে প্রশাসন কী ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার গজাইল গ্রামে গত ২৫ নভেম্বর রাতে এক গৃহবধূ আত্মীয়য়ের বাড়িতে যাওয়ার জন্য ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলের খোঁজে বের হন। এ সময় তার পথ আটকে, আপত্তিকর অবস্থায় পাওয়ার অভিযোগ তুলে এলাকাবাসীকে জড়ো করেন স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রশিদ ও তার সহযোগীরা। পরে দা দিয়ে সবার সামনে ওই গৃহবধূর চুল কেটে দেয় তারা। পূর্ব শত্রুতার জেরেই এ নির্যাতন চালিয়েছে বলে দাবি ভুক্তভোগীর।

তিনি বলেন, আমার চুল কেটেই তারা বলে ‘আমার মনের আশা পূরণ হলো। আজ ২ বছর বসে আছি তোর চুল কাটার জন্য।’

অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগীর স্বজন ও এলাকাবাসী।

তারা বলেন, আমরা এর কঠিন শাস্তি চাই। দলীয় প্রভার খাটিয়ে অবৈধ ভাবে তার চুল কেটে দিয়েছে। অত্যাচার করেছে।

খবর কৃতজ্ঞতা : somoy