পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের জের : শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ডাক্তারসহ ১০জনকে কারণ দর্শানো নোটিশ

এস এম মারুফ, বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোরের শার্শা উপজেলার (নাভারণ-বুরুজবাগান) সরকারী স্বাস্থ্য কেন্দ্রের চিকিৎসকদের অবহেলা ও কমিশন বানিজ্যে রোগীরা প্রতারিত মর্মে সম্প্রতি বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় স্বাস্থ্য কেন্দ্রের চিকিৎসকদের মধ্যে দৌড়-ঝাপ শুরু হয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়। চিকিৎসকদের নানাবিধ অনিয়ম ও অবহেলার কারণে রোগীরা প্রতারিত হওয়ায় উপজেলার (নাভারণ-বুরুজবাগান) সরকারী স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সেবার মান অতি নিম্ন পর্যায়ে নেমে আসে এবং হাসপাতালের চিকিৎসকদের ঘিরে নানা জায়গায় নানা রকম গুঞ্জন ছড়াতে থাকে। ইতিমধ্যে চিকিৎসকদের নানাবিধ অনিয়ম ও অবহেলার বিষয় তুলে ধরে বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নড়ে-চড়ে বসেছে। সকাল ৮টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত হাসপাতালে রোগী সেবার কাজে চিকিৎসকদের নিয়োজিত থাকার নিয়ম থাকলেও বিলম্বে হাসপাতালে উপস্থিত হওয়ার কারণে চিকিৎসকসহ ১০জনকে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা অশোক কুমার সাহা।

এ বিষয়ে মঙ্গলবার সকালে উপজেলার (নাভারণ-বুরুজবাগান) সরকারী স্বাস্থ্য কেন্দ্রের উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা অশোক কুমার সাহার নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, হাসপাতালের চিকিৎসকদের ঘিরে সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় আমি নিজেই এখন থেকে রোগী দেখা বন্ধ করে দিয়েছি। এখন থেকে হাসপাতালের রোগী সেবার বিষয়ে তদারকী করব। হাসপাতালের চিকিৎসকদের ঘিরে কোন অনিয়ম সাংবাদিকদের সংবাদপত্রে লেখার সুযোগ আর থাকবেনা। হাসপাতালের সময়-সূচী অনুসরণ না করায় ইতিমধ্যে চিকিৎসক আক্তার মারুফ, হুমায়রা আশরাফী তন্বী, রাবেয়া খাতুন, উৎপলা বিশ্বাস, মেডিকেল টেকনিশিয়ান হুমায়ুন কবীর, আনিছুর রহমান, মাহমুদুর রহমানসহ ১০জনকে কারণ দর্শানো নোটিশ দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে হাসপাতালের চিকিৎসক ও কর্মচারীদের মধ্যে দায়িত্ববোধ ফিরে আসতে শুরু করেছে এবং রোগীরাও ভালমত সেবা পাচ্ছে।