‘নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধের চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা’

রাজশাহী সংবাদদাতা : দেশের তিন সিটি নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করা হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘যেকোনো মূল্যে নির্বাচন গ্রহণযোগ্য করতে চায় কমিশন। এ নিয়ে কারও সঙ্গে কোনো আপোষ করা হবে না।’

সোমবার রাজশাহী সিটি নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। রাজশাহী মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সকালে কর্মশালার উদ্বোধন করেন ইসি কমিশনার রফিকুল ইসলাম। এ সময় তিনি নির্বাচন নিয়ে কর্মকর্তাদের মাঝে দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন।

রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনে বাধাগ্রস্ত করলে কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। প্রার্থী কিংবা নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তা অথবা অন্য কোনো সংস্থার কেউ যদি সুষ্ঠু নির্বাচনে বাধা হয়ে দাঁড়াতে আসে তবে তা প্রতিহত করা হবে। নির্বাচন কমিশন সিটি নির্বাচনগুলোকে অত্যন্ত গ্রহণযোগ্য করে শেষ করতে চায়, যেন এসব নির্বাচন নিয়ে কারও কোনো অভিযোগ না থাকে।’

রাজশাহী সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা সৈয়দ আমিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ইসি কমিশনার আরও বলেন, ‘নির্বাচনে যারা দায়িত্ব পালন করবেন, তারা সবার ‘শত্রু’। প্রার্থী, প্রার্থীর সমর্থক এমনকী সাধারণ মানুষেরও আক্রমণের শিকার হন তারা। তবু ভয়ভীতির ঊর্দ্ধে থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে।’ এজন্য নির্বাচনী কর্মকর্তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

আগামী ৩০ জুলাই রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। রাজশাহীতে এবার ১৩৮টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হবে। এসব কেন্দ্রের বুথের সংখ্যা ১ হাজার ২৬টি। প্রতিটি কেন্দ্রে একজন করে প্রিজাইডিং অফিসার দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া প্রতিটি বুথে একজন করে সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার এবং দুইজন করে পোলিং অফিসার দায়িত্ব পালন করবেন।