নারীদের সতীত্ব পরীক্ষা বাতিলের আহ্বান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আফগানিস্তানে নারীদের সতীত্ব পরীক্ষা করার পদ্ধতি বাতিল করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দেশটির মানবাধিকার কমিশন। খবর বিবিসির। মানবাধিকার কর্মীরা বলেছেন, নারীদের সতীত্ব পরীক্ষার মাধ্যম তাদের চরম অবমাননা এবং হয়রানির মুখোমুখি হতে হয়।
আফগানিস্তানে কোন নারী যদি তার প্রেমিকের সঙ্গে ঘর ছাড়ে তাহলে তাকে আটক করে সতীত্ব পরীক্ষা করা হয়। এর মাধ্যমে যাচাই করা হয়, সে নারী তার প্রেমিকের সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে লিপ্ত হয়েছিল কী না।
এ ধরনের পরীক্ষা একজন নারীর জন্য চরম অবমাননাকর এবং সেটি যৌন হয়রানির শামিল বলে মনে করেন মানবাধিকার কর্মীরা। এ ধরনের পরীক্ষার মাধ্যমে যদি বিবাহ বহির্ভূত শারীরিক সম্পর্ক প্রমাণিত হয়, তাহলে ১৫ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড দেয়া হয়।
কিন্তু দেশটির মানবাধিকার কমিশন বলছে, এ ধরনের পরীক্ষার কোনো ভিত্তি নেই। কারণ যেভাবে এ পরীক্ষা করা হয়, সেটি সম্পূর্ণ বৈজ্ঞানিক নয় এবং চিকিৎসা বিজ্ঞানে এর কোনো ভিত্তি নেই।
তাছাড়া জোর করে কোনো নারীকে এ ধরনের অবমাননাকর পরীক্ষা করতে বাধ্য করা মানবাধিকারের লঙ্ঘন বলে মনে করে দেশটির মানবাধিকার কমিশন।
তবে এ বিষয়ে আফগানিস্তান সরকারের কোনো ভাষ্য এখনো পাওয়া যায়নি।