নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের ৪র্থ পূনর্মিলনী

নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ অ্যালামনাই এসোসিয়েশন তাদের ৪র্থ পূনর্মিলনীর আয়োজন করে গত শুক্রবার (২৩ ডিসেম্বর, ২০১৭)। বিশ^বিদ্যালয়ের হলরুমে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর বোর্ড অব ট্রাস্ট এর চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মো. আব্দুল্লাহ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যথাক্রমে বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন, উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ারুল করীম ও ট্রেজারার মোঃ আনোয়ার হোসেন।

প্রধান অতিথি অ্যালামনাইবৃন্দকে বিশ^বিদ্যালয়ের আজীবন সদস্য হিসেবে ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, অ্যালামনাইবৃন্দ বিশ^বিদ্যালয়ের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর। নর্দান ইউনিভার্সিটির পঁচিশ হাজার শিক্ষার্থী গ্রাজুয়েশন শেষ করে বিদেশে এবং দেশের বিভিন্ন সেক্টরে সফলভাবে পেশাগত দায়িত্ব পালন করছেন। প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পেশাগত জীবনের সফলতা বিশ^বিদ্যালয়ের সফলতা হিসেবে বিবেচিত হয়। তিনি বলেন, নর্দান ইউনিভার্সিটির অ্যালামনাই এসোসিয়েশন অনুজ শিক্ষার্থীদের মনোবল বৃদ্ধি করে। অনুজরা মনে করে গ্রাজুয়েশন শেষে ক্যারিয়ার গঠনে দিকনির্দেশনা দেবার মত অবিভাবক তাদের রয়েছে। তিনি অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের বৃত্তিমূলক সকল কার্যক্রমের প্রশংসা করেন।


অ্যলামনাই এসোসিয়েশন সভাপতি শেখ মঞ্জুর মোর্শেদ এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক এসএম ফিরোজ আহমেদ ও সদস্য সৈয়দ লুৎফুল হক এর সঞ্চালনায় এ অনুষ্ঠানে নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সিনিয় ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. আসাদুজ্জামান, ভাইস প্রেসিডেন্ট তোহিদুল ইসলাম, ব্যারিস্টার মোতাসিম বিল্লাহ ফারুকী বক্তব্য রাখেন। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এনইউবি’র এর পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোছা. হাবিবুন নাহার, এসোসিয়েশনের উপদেষ্টাম-লী, নেতৃবৃন্দ, সদস্যবৃন্দ, নর্দান ইউনিভার্সিটি’র বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষকম-লী ও শিক্ষার্থীরা। অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সাংস্কৃতিক পর্ব সঞ্চালনা করেন এসোসিয়েশনের সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো. জাকির হোসাইন। সাংস্কৃতিক পর্বে বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থীবৃন্দ ও আমন্ত্রিত শিল্পীরা সংগীত পরিবেশন করেন।

 

Inline
Inline