নর্দান ইউনিভার্সিটিতে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা

ইমতিয়াজ আহমেদ মিতুল,ঢাকা : মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ ‘বঙ্গবন্ধুর গল্প শুনি, মুক্তিযুদ্ধের গল্প শুনি’ শিরোনামে এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। এ অনুষ্ঠানের সহআয়োজক ছিল সুচিন্তা ফাউন্ডেশন। নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর হলরুমে আয়োজিত এ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মোঃ আব্দুল্লাহ। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন এর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগদান করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত সংগীত শিল্পী জনাব খুরশীদ আলম। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন, নর্দান ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ারুল করিম ও ট্রেজারার মোঃ আনোয়ার হোসেন। সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের পরিচালক কানতারা খান এ অনুষ্ঠানে বক্তব্য উপস্থাপন করেন।
প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, নতুন প্রজন্ম বেড়ে উঠছে। কিন্তু জাতীয় মূল্যবোধ তাদের মাঝে পরিলক্ষিত হয় না। এ দায় ওদের ঘাড়ে চাপালে চলে না। এ দায় আমাদের, এ দায় অভিভাবকদের। তিনি বলেন, তরুণ প্রজন্মকে বোঝাতে হবে- কোনটা আমাদের, কোনটা আমাদের নয়। তাদেরকে সাংস্কৃতিক সমৃদ্ধতায় বড় করতে হবে। প্রধান অতিথি বলেন, দেশে দল-মত ভেদাভেদ থাকবে। কিন্তু বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন, জাতির স্বাধীনতার ইতিহাস, স্বাধীনতার প্রাণ পুরুষ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইত্যাদি জায়গায় কোন ভেদাভেদ থাকা চলে না।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জনাব খুরশীদ আলম বলেন, আমাদের তরুণ প্রজন্ম আমাদের সংস্কৃতি সম্পর্কে কোন খবর রাখে না। তারা তাদের পূর্বসূরী বিশিষ্ট ব্যক্তিদেরকে জানছে না। এতে করে আমাদের সংস্কৃতি পিছিয়ে পড়ছে। তিনি তরুন প্রজন্মকে নিজস্ব সংস্কৃতি লালনের আহ্বান জানান। দেশের মর্যাদা রক্ষায় সকলের ঐক্যমত প্রার্থনা করেন।
অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আজ সারাবেলা অনলাইন পোর্টালের সম্পাদক সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের অন্যতম সংগঠক জনাব জব্বার হোসেন। এতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর ডিরেক্টর ডেভেলপমেন্ট এন্ড ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স একতেদার আহমেদ সিদ্দিকী, রেজিস্ট্রার মোঃ রাশিদুল ইসলাম, প্রফেসর ড. শাহাদাদ কবীর, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় প্রধানগণ, শিক্ষকম-লী, প্রশাসনিক কর্মকর্তা-কর্মচারি, অভিভাবকবৃন্দ ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।