‘দ্যা নবাব’ এর বার্ষিক বনভোজন রূপ নেয় নবাবদের মিলনমেলায়

রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ : পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী একটি বিদ্যালয় যার নাম নবাবপুর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়। নবাবপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রদের একমাত্র সংগঠন “ দ্যা নবাব ”। গত ১২-০১-২০১৮ ইং, রোজ শুক্রবার, ঢাকার অদূরে নারায়ণগঞ্জ জেলার মদনপুরের সায়রা গার্ডেন রিসোর্ট-এ আয়োজন করা হয়েছিল “দ্যা নবাব”এর বার্ষিক বনভোজন । উক্ত বনভোজনে প্রায় সকল প্রাক্তন ছাত্রবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এসেছিলেন পরিবার পরিজন নিয়েও। এই সময় নবাব ও নবাব পরিবারের সবার আড্ডা, গান ও খেলাধূলায় সায়রা গার্ডেন মুখরিত হয়ে উঠে। এ যেন নবাবের এক নবাবী হাট, নবাবদের এক মহা মিলনমেলা।
নবাব বনভোজন-২০১৮ এর আয়োজক কমিটি নবাব ও নবাবদের পরিবারের জন্য আয়োজন করেন ক্রীড়া প্রতিযোগীতা। যার মধ্যে শিশুদের জন্য ৫০ মিটার দৌড়, মহিলাদের জন্য মার্বেল দৌড় ও পিলো পাসিং এবং পুরুষদের জন্য মোরগ লড়াই, ক্রিকেট ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। উক্ত বনভোজনে আগত অতিথিদের মধ্যে র‍্যাফেল ড্র এর টিকেট বিতরণ করা হয়। উক্ত র‍্যাফেল ড্র এর টিকেট থেকে সংগৃহীত অর্থ দ্বারা স্কুলের ছাত্রদের জন্য বিশুদ্ধ পানির সুব্যবস্থা করার ব্যাপারেও ঘোষনা দেয়া হয়। উক্ত লটারির মোট ৫১ টি উপহার “ দ্যা নবাব ” এর পক্ষ থেকে দেয়া হয়। যার মধ্যে কিছু উপহার “দ্যা নবাব” এর অর্থায়ন থেকে এবং কিছু উপহার নবাবগণ হতে সরাসরি পাওয়া যায়।
দুপুরে নবাবী ভোজনের পরে ছোট একটি আলোচনাসভা করা হয়। উক্ত সভার সভাপতিত্ব করেন “ দ্যা নবাব ” এর সভাপতি জনাব খুরশিদ হোসাইন। তিনি সকলের কাছে স্কুলের বিভিন্ন সমসাময়িক সমস্যার কথা তুলে ধরেন, জবাবে সকল নবাব তাঁর কথায় সাড়া দিয়ে প্রত্যেকে প্রত্যেকের স্ব স্ব অবস্থান থেকে সব ধরনের সাহায্য সহযোগিতার আশ্বাস দেন। আগত অতিথিদের মধ্যে সবচেয়ে বয়োজ্যেষ্ঠ নবাব জনাব গিয়াস উদ্দীন চৌধুরী (খোকন) (৭৪তম ব্যাচ) তিনি বলেন, নিজেদের অনেক ব্যস্ততার কারনে ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও সবার সাথে মিলিত হতে পারি না। কিন্তু আমি আজ অনেক আনন্দিত যে “ দ্যা নবাব ” এমন একটি সুবর্ণ সুযোগ করে সকল নবাব কে একই ছাতার নিচে আনতে পেরেছে। আমি দৃঢ়ভাবে বলছি স্কুলের যে কোন সময়, যে কোন ধরনের উন্নয়নে সাহায্য সহযোগিতা করবো।
এছাড়া সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন ব্যাচ ৯৫, ব্যাচ ৯৬, ব্যাচ ৯৭, ব্যাচ ৯৯ ও ব্যাচ ২০০০ এর নবাবগণ। অধিকাংশ নবাব ছাত্রই তাঁদের শৈশবের দুরন্তপনার মজার মজার ঘটনা সবার সাথে শেয়ার করেন। “দ্যা নবাব” এর সভাপতি জনাব খুরশীদ হোসাইন এবং নবাব বনভোজনের আহবায়ক জনাব আশরাফ উদ্দীন চৌধুরী (রাজীব) আগত অতিথিদের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং বিশেষ কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেন তাদের প্রতি যারা অর্থ দিয়ে বা শ্রম দিয়ে বিভিন্ন ভাবে সাহায্য সহযোগীতা করেছেন এই নবাব বনভোজনে তথা সর্বপরি।
বিকেলের পর জমকালো সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা এবং আকর্ষণীয় র্যাফেল ড্র এর মধ্য দিয়ে শেষ হয় নবাব বনভোজন। উক্ত সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় প্রাক্তন ছাত্ররাই অংশ নেয়। নবাব বনভোজনে নবাবগণ তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে অংশগ্রহন করতে পেরে খুবই আনন্দিত।
নবাব বনভোজন-২০১৮ এর আয়োজক কমিটিঃ
আশরাফ উদ্দিন চৌধুরী রাজীব -আহ্বায়ক, মশিউর রহমান-যুগ্ম আহ্বায়ক, মোঃ শাহিদুল ইসলাম-কোষাধ্যক্ষ, পারভেজ হোসাইন- সহকারী কোষাধ্যক্ষ।
সদস্যঃ ফিরোজ আখতার, খুরশিদ হোসাইন, কামরান আহমেদ, এনায়েত রনি, জহিরুল হক পলাশ, ওমর ফারুক সোহেল, সম্রাট, রিজয়ান আলম, দীপঙ্কর রায়, ইয়াসিন আলম, মুক্তার হোসেইন আদনান, হাফীজুর রহমান, মোহাম্মাদ রিয়াজুল ইসলাম, মুশফিকুর রহমান।