দেশের উন্নয়নে আওয়ামীলীগ সরকারের বিকল্প নেই: মাহমুদ হাসান রিপন

বগুড়া সংবাদদাতা  : কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন বলেছেন, দেশের উন্নয়ন এবং দেশবাসীর ভাগ্যের উন্নয়নে আওয়ামীলীগ সরকারের বিকল্প নেই। বর্তমান সরকার অসহায় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন। হতদরিদ্রদের জন্য বয়স্কভাতা, বিধবা ভাতা, কর্মসৃজন প্রকল্প, শিক্ষিত বেকার যুবক ও যুব নারীদের কর্মসংস্থানের জন্য ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচি বাস্তবায়ন, ছাত্রছাত্রীদের বিনামূলে পাঠ্যপুস্তক সরবরাহ, উপবৃত্তি প্রদানসহ বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কাজ বাস্তবায়ন করে চলেছেন। যমুনা নদীর ভাঙ্গন থেকে ১শ’ ৪২ কোটি টাকা ব্যয়ে সাঘাটা বাজার রক্ষা প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে গাইবান্ধার সাঘাটার ঘুড়িদহ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ আয়োজিত আওয়ামীলীগ নেতা দিনেশ্ব চন্দ্রের বাড়ী প্রাঙ্গনে এক উঠান বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। উঠান বৈঠকে হাজার হাজার নারী পুরুষ সমবেত হলে তা জনসভায় পরিণত হয়। ঘুড়িদহ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি অণিল চন্দ্রের সভাপতিত্বে এবং উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খায়রুল বাশারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উঠান বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, গাইবান্ধা জেলা আওয়ামীলীগ সহ- সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, সাঘাটা উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সামশীল আরেফিন টিটু, ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. নরুল আমিন, সাঘাটা উপজেলা তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মোকছেদুল হাসান সাজু, সাহিত্য ও গবেষণা সম্পাদক হুমায়ুন কবির সুমন, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক প্রভাষক সাজেদুর রহমান শিপন, সাঘাটা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান, বোনারপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়ারেছ প্রধান, কচুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান, জাতীয় শ্রমিকলীগ সাধারণ সম্পাদক মোজাহিদুল ইসলাম বকুল, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ আহ্বায়ক খন্দকার ইকবাল হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মিজান, কামালেরপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মুনছুর রহমান ভোলা, উপজেলা তাঁতী লীগ সভাপতি মামুনুর রশিদ চিনু প্রমুখ। মাহমুদ হাসান রিপন আরো বলেন, স্বাস্থ্য সেবা জনগণের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার জন্য প্রতিটি ইউনিয়নে কমিউিনিটি ক্লিনিক চালু করে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ প্রদাণ করা হচ্ছে। যার সুফল জনগণ পাচ্ছে। ২০১৯ সালের মধ্যে দেশে শতভাগ বিদ্যুতায়ন নিশ্চিত করা হবে। বর্তমান সরকার যোগাযোগের ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করেছেন। দেশি বিদেশী ষড়যন্ত্র উপেক্ষা করে দেশের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। স্বপ্নের এই পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হলে দেশ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাবে। চরাঞ্চলের বিশাল জনগোষ্ঠিকে অবহেলিত রেখে উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ হবে। তাই চরাঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন দরকার। তিনি আরও বলেন, আমি আপনাদের ভাগ্যের পরিবর্তনের জন্য কাজ করে যেতে চাই। আওয়ামীলীগ সরকার দেশের বিভিন্ন সেক্টরে অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধন করায় বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে মর্যাদা লাভ করেছে। দেশের উন্নয়নের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার জন্য এবং উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে বেগবান করে দেশের মানুষের ভাগ্যন্নোয়ন এবং সমৃদ্ধশালী দেশ গড়ার লক্ষ্যে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগের বিজয় নিশ্চিত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য তিনি সাঘাটা-ফুলছড়ি উপজেলাবাসীর প্রতি আহ্বান জানান। এর জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করার উপর তিনি গুরুত্বারোপ করেন।