দুই চিকিৎসককে সম্মাননা দিলেন প্রধান বিচারপতি

মানিকগঞ্জ সংবাদদাতা : চিকিৎসা ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের জন্য হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) ডা. আব্দুল মালিক এবং কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. হারুন উর রশিদকে আজীবন সম্মাননা প্রদান করেছে সাহেরা-হাসান মেমোরিয়াল ট্রাস্ট।

শুক্রবার দুপুরে মানিকগঞ্জের গড়পাড়ায় মানবকল্যাণে নিবেদিত চিকিৎসা সেবাপ্রদানকারী এ হাসপাতালের ২০ বছর পূর্তি ও মিডওয়াইফারি ১ম ব্যাচের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে তাদের হাতে সম্মানা ক্রেস্ট তুলে দেয়া হয়।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন এবং হাসপাতাল ট্রাস্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. রওশন আরা বেগম সম্মাননাপ্রাপ্তদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন। অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) ডা. আব্দুল মালিক অসুস্থ থাকায় তার পক্ষে ক্রেস্ট গ্রহণ করে তার মেয়ে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের কার্ডিওলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. ফজিলাতুন নেসা মালিক এবং জামাতা ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের মহাসচিব অধ্যাপক ডা. খোন্দকার আব্দুল আউয়াল রিজভী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিচারপতি এম এনায়েতুর রহিম ও কুদ্দুস জামান, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্টার জেনারেল জাকির হোসেন, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহের হোসেন সাজু, দুর্নীতি দমন কমিশনের আইন বিভাগের মহাপরিচালক মো. মঈদুল ইসলাম, পরিচালক মো. ওয়াদুদ, মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌস ও পুলিশ সুপার রিফাত রহমানসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার প্রতিনিধিবৃন্দ।

উল্লেখ্য, দেশের খ্যাতনামা গাইনী বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. রওশন আরা বেগম এবং তার সকল ভাই-বোন তাদের গ্রামের বাড়িতে অসহায় ও দরিদ্র মানুষের চিকিৎসা সেবা দেয়ার লক্ষে তাদের বাবা মীর হাসান আলী ও মা সাহেরা খাতুনের নামে সাহেরা-হাসান হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠা করেন। তাদের এই মানবকল্যাণে নিবেদিত রয়েছে কিছু সাদা মনের চিকিৎসক।

সম্মাননা অনুষ্ঠানে এসে অনুভূতি ব্যক্ত করেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ এম সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেন, ইদানিং হৃদ রোগ ও কিডনি রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার ব্যবস্থা সর্বত্র থাকা দরকার। সাহেরা-হাসান মেমোরিয়াল হাসপাতাল যে কাজটি করছে তা কৃতিত্বের দাবিদার।