দুই কোরিয়ার সম্পর্ক ক্ষতিগ্রস্ত করছে যুক্তরাষ্ট্র: উত্তর কোরিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পিয়ংইয়ংয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার সম্পর্ক ক্ষতিগ্রস্ত করছে। দুই কোরিয়ার মধ্যে সম্পর্কের যে সেতুবন্ধন তৈরি হয়েছে তা নস্যাতের চেষ্টা অব্যাহত থাকলে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য তা খারাপ পরিণতি বয়ে আনবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে উত্তর কোরিয়া।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত দৈনিক রডং সিনমুন এক নিবন্ধে এই তথ্য তুলে ধরেছে। দুই কোরিয়ার মধ্যে সম্পর্কের উন্নতি হলে তাতে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো ক্ষতি হবে না বলে নিবন্ধে দাবি করা হয়েছে।

গত ২৭ এপ্রিল দুই দেশের সীমান্তবর্তী পানমুনজম গ্রামে ঐতিহাসিক বৈঠকে মিলিত হন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন ও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন। বৈঠকে দুই নেতা কোরীয় উপদ্বীপকে সম্পূর্ণভাবে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করার লক্ষ্যে একযোগে কাজ করতে সম্মত হন।

এছাড়া বৈঠকে দুই দেশের মধ্যে বৈরী কার্যকলাপের সমাপ্তি ঘোষণা, ১৯৫৩ সালে কোরীয় যুদ্ধে যেসব পরিবার বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছিল তাদের একত্রিত করা, দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের জন্য চীন ও যুক্তরাষ্ট্রকে চাপ দেয়া এবং চলতি বছরের এশিয়ান গেমস থেকেই আন্তর্জাতিক খেলাধুলার ইভেন্টগুলোতে দুই কোরিয়ার যৌথ অংশগ্রহণ করতে সম্মত হন দুই কোরিয়া।

রডং সিনমুনের নিবন্ধে দুই কোরিয়ার নেতাদের মধ্যে বৈঠকে যেসব সমঝোতা হয়েছে সেগুলো বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের যেকোনো ষড়যন্ত্রের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

দুই কোরিয়ার সম্পর্ক শক্তিশালী করার ক্ষেত্রে বাইরের কারো দ্বারা প্রভাবিত হওয়া সিউলের উচিত হবে না বলে নিবন্ধে বলা হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের একজন প্রতিনিধি আজ (বুধবার) পিয়ইয়ং সফরে যাচ্ছেন। সফরে তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের মধ্যে আরেকটি শীর্ষ বৈঠক আয়োজনের তারিখ নির্ধারণের চেষ্টা করবেন বলে জানা গেছে।

Inline
Inline