দীর্ঘ ১৭ বছরেও এমপিওভুক্ত হয়নি কাশিয়ানীর রাতইল কলেজ

এম শিমুল খান, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার রাতইল আইডিয়াল কলেজটি দীর্ঘ ১৭ বছর পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত এমপিও ভুক্ত হয়নি। ফলে বিনা বেতনে প্রায় দেড় যুগ ধরে পাঠদান করে মানবেতর জীবন যাপন করছেন ওই কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও কর্মচারীরা।

প্রতিষ্ঠানটিতে ভৌত অবকাঠামো ও প্রয়োজনীয় দক্ষ শিক্ষক, শিক্ষিকা কর্মচারী এবং লোকবল রয়েছে।

জানা গেছে, এ অঞ্চলে শিক্ষা বিস্তারের লক্ষ্যে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ২০০০ সালে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের পাশে ১.২২ একর জমির ওপর কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০০২ ও ২০০৫ সালে পাঠদানের অনুমতি এবং একাডেমিক অনুমতি পেয়ে চূড়ান্ত পরীক্ষার ফলাফলে উপজেলার মধ্যে একাধিক শ্রেষ্ঠত্বের গৌরব অর্জন করে।

বর্তমান ৬৫ জন ছাত্রছাত্রী অধ্যয়নরত ও ১৫ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা পাঠদানে কর্মরত রয়েছেন।

রাতইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যার বি এম, হারুন অর রশিদ (পিনু) বলেন, কলেজ প্রতিষ্ঠা হওয়ার কারণে এ অঞ্চলের ছেলে-মেয়েরা বাড়ির কাছেই উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পাচ্ছে। কিন্তু এমপিওভুক্ত না হওয়ায় শিক্ষক শিক্ষিকারা বর্তমানে মানবেতর জীবনযাপন করছে।

সভাপতি মো: ফারুক আহম্মেদ (জাপানী ফারুক) জানান, কলেজটি এমপিওভুক্ত এবং বিনা বেতনে প্রায় দেড় যুগ ধরে শিক্ষক-শিক্ষিকা ও কর্মচারীদের বেতন ভাতার আদেশ দেয়ার জন্য গোপালগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য কর্ণেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খানের সহযোগিতা কামনা করছি।

কলেজ অধ্যক্ষ এস এম জুলফিকার বলেন, বর্তমান সরকার স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। পরীক্ষার ফলাফল, অবকাঠামো, শিক্ষার্থীর সংখ্যা তথা সর্বোপরি বিবেচনায় আমাদের কলেজটি এমপিও হওয়ার দাবিদার। কলেজে কর্মরত শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মচারী, শিক্ষার্থী ও এলাকার অভিভাবকদের প্রাণের দাবি অবিলম্বে কলেজটি এমপিওভুক্তি করা হোক।

Inline
Inline