দিনাজপুরে শিলাবৃষ্টিতে বৃদ্ধের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, দিনাজপুর : শিলা বৃষ্টির আঘাতে দিনাজপুরে পার্বতীপুরে মারা গেছেন সৈয়দ আলী নামে এক বৃদ্ধ মারা গেছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরো ১২ জন।

দিনাজপুরে শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টা এবং দুপুর দেড়টায় দু’দফা বয়ে যায় ঝড়ো হাওয়া ও শিলাবৃষ্টি। জেলার ১৩টি উপজেলার প্রায় সব কটি উপজেলায় এই ঝড়ো হাওয়া ও শিলাবৃষ্টি হলেও সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে পার্বতীপুর, নবাবগঞ্জ, চিরিরবন্দর।

এই কয়েকটি উপজেলার হাজার হাজার একর জমির গম, ভুট্টা, বোরো ক্ষেতসহ বিভিন্ন ফসল এবং আম ও লিচুর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে শত শত ঘর-বাড়িরও ক্ষয়ক্ষতি হয়। ফুটো হয়ে গেছে অসংখ্য ঘরের টিন সেট।

দিনাজপুর জেলা প্রশাসক আবু নঈম মো. আবদুছ ছবুর জানান, দিনাজপুরের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে সবচেয়ে ক্ষতি হয়েছে নবাবগঞ্জ উপজেলা। এছাড়াও অন্যান্য উপজেলায় ক্ষতি হয়েছে।

তিনি আরো জানান, সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণের কাজ চলছে।

এদিকে শিলাবৃষ্টির আঘাতে পার্বতীপুর উপজেলায় সৈয়দ আলী (৬২) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। সৈয়দ আলী পার্বতীপুর উপজেলার চন্ডীপুর ইউনিয়নের চৈতাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম জানান, ঝড়ের সময় সৈয়দ আলী তার নিজ ঘরের টিনের চালা সংস্কার করছিলেন। এ সময় মাথায় শিলার আঘাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তরফদার মাহমুদুর রহমান শিলাবৃষ্টিতে একজনের মৃত্যু হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, একজনের মৃত্যুর পাশাপাশি আরও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।

চন্ডিপুর ইউনিয়নের মুন্সীপাড়া গ্রামের প্রবীণ ব্যক্তি আব্দুল মজিদ জানান, তিনি তার জীবনে এতো বড় আকারের শিলা দেখেননি। প্রতিটি শিলার ওজন ছিল ৩শ গ্রামের ওপরে।