দামুড়হুদায় শিবিরের ৯ নেতাকর্মী আটক : ১০টি ককটেল উদ্ধার

হাবিবুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় নাশকতার পরিকল্পনার সময় অভিযান চালিয়ে শিবিরের নয় নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় উদ্ধার করা হয় ১০টি ককটেল ও চাঁদা আদায়ের রশিদ।

মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে দামুড়হুদা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে তাদের আটক করা হয়।

পুলিশ জানায়, দামুড়হুদা ইউনিয়ন পরিষদের সভাকক্ষে চেয়ারম্যান জামাত নেতা শরিফুল ইসলাম শিবিরের একদল নেতাকর্মীকে নিয়ে নাশকতার পরিকল্পনা করছেন এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুকুমার বিশ্বাসের নেতৃত্বে এসআই আমজাদ হোসেন, সেকেন্ড অফিসার এসআই রাজিব হাসান, এসআই কামরুল হাসান, এসআই কাজী শামসুল আলম ও এএসআই কামরুজ্জামান বকুল সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে দ্রুত পৌঁছে সেখানে অভিযান চালায়।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে চেয়ারম্যানসহ কয়েকজন পালিয়ে গেলেও আটক করা হয় শিবিরের নয় নেতাকর্মীকে। এসময় উদ্ধার করা হয় ১০টি ককটেল ও চাঁদা আদায়ের রশিদ। আটককৃতরা হলেন, দামুড়হুদা উপজেলার সুবলপুর গ্রামের জুল হকের ছেলে দরুদ আলী(১৯) ও হাসান আলী(১৮), একই গ্রামের আব্দুল গনির ছেলে মোমিনুল ইসলাম(২২), শামসুল হকের ছেলে তরিকুল ইসলাম(২০) ও আলমগীর হোসেন(১৮), মোহাম্মদ আলীর ছেলে মুসা করিম(১৮), নুরুল ইসলামের ছেলে ফারুক হোসেন(১৯), মোক্তারপুর গ্রামের আতিয়ার রহমানের ছেলে আব্দুস সামাদ(২৪) এবং একই গ্রামের আশাদুল হকের ছেলে শামিম রেজা(২৪)।

পলাতক চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলামকে গ্রেফতার করতে অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানান দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস। তিনি আরও জানান, আটককৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।