ত্বক ও চুলের সুরক্ষায় ফলমূল

গ্রীষ্মের তাপদাহে জনজীবন এমনিতেই অতিষ্ঠ হয়ে পড়ে। চারপাশের প্রচুর ধুলোবালি, সূর্যের প্রখর তাপ ত্বক ও চুলের জন্য বেশ অস্বস্তিদায়ক পরিবেশই তৈরি করে। তাই সময়টাতে স্বাস্থ্যের দিকে একটু বাড়তি মনোযোগ দিন। এই ঋতুতে ত্বক ও চুলের সুস্বাস্থ্যে নিশ্চিত করতে প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করতে পারেন। এটি শুধু দীর্ঘমেয়াদি ত্বক ও চুলের সুরক্ষা দেবে না পাশাপাশি আপনার ত্বক পরিষ্কার ও ব্রণমুক্ত করবে। তাই দেরি না করে চলুন জেনে নেয়া যাক, ত্বক এবং চুলের জন্য উপকারী প্রাকৃতিক কিছু উপাদানের কথা যা আপনি হাতের কাছেই পাবেন এবং ব্যবহার প্রক্রিয়াও অনেক সহজ।

পাকা কলা: পাকা কলার পেস্ট বা লেই তৈরি করে চুলে লাগাতে পারেন। এতে চুল মসৃণ, নরম এবং উজ্জ্বল হবে।কলার পেস্ট আপনার মুখেও লাগাতে পারেন। ত্বক ব্রণ বা দাগ মুক্ত করতে কলার পেস্টের জুড়ি নেই। তাছাড়া, ত্বক উজ্জ্বল এবং রঞ্জক পদার্থ থেকে ত্বকের সুরক্ষা দেবে এই উপাদানটি। আরও ভালো ফল পেতে কলার পেস্টের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

পেঁপে: অর্ধেক পাকা পেঁপে ফ্রিজে পুরো রাত রেখে দিন। পরের দিন পেঁপেটি ব্লেন্ড করে পেস্ট তৈরি করে নিন। পেঁপের পেস্ট মুখে লাগিয়ে এক ঘন্টা অপেক্ষা করুন। এরপর হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বক বাড়তি পুষ্টি পাবে, ব্রণ এবং দাগ থেকে রক্ষা করবে।

স্ট্রবেরি: ত্বকের সুক্ষ্ম রেখা, বলিরেখা এবং ত্বকের বার্ধক্য প্রতিরোধ করতে কয়েকটি স্ট্রবেরি একসঙ্গে পেস্ট করে নিন। সপ্তাহে দুই দিন সরাসরি মুখমণ্ডলে ব্যবহার করুন। প্রথম কিছুদিন ত্বক চুলকাতে পারে। নিয়মিত ব্যবহার করলে ত্বক ঠাণ্ডা অনুভূত হবে এবং উজ্জ্বল দেখাবে।

কমলা: আপনি জানেন কি কমলার রস এক মিনিটে আপনার ত্বক ফর্সা করতে পারে? সূর্যের তাপে আমাদের ত্বক তামাটে বর্ণ ধারণ করে স্বাভাবিক রঙ হারিয়ে যায়। তারা নিয়মিত কমলার পেস্ট ব্যবহার করতে পারেন। পেস্টটি ঘন করতে কলা এবং বেসন মিশিয়ে নিতে পারেন। সম্ভব হলে পেস্টে অল্প পরিমাণে গোলাপজল ব্যবহার করুন।

Inline
Inline