তৃষ্ণা পূরণে, পুষ্টি মেটাতে ডাব

ফিচার ডেস্ক : বর্ষার শেষেও রোদের তাপ কমছে না। জলীয় বাস্পপূর্ণ বাতাসে ভাপসা গরম। ফলে তৃষ্ণা যেনো মেটেই না। আবহাওয়ার যখন এমন হাল তখন চাই প্রচুর পরিমানে পানীয় পান করা। পানীয়টা যদি হয় কচি ডাব, তবে তো কথাই নেই। তৃষ্ণাও নিবারণ হবে, পুষ্টিও মিলবে।

ডাবের পানি শুধু তৃষ্ণা মেটায় না, এর রয়েছে নানা গুণ আছে। জানেন কী সে সব কী?

ডাবের পানি শরীরে পানি ভারসাম্য রাখে। অনেক সময়ই অতিরিক্ত তেল-মশলা, ঠান্ডা পানীয় এ সব আমাদের শরীরে পানির চাহিদা বাড়ায়। তাই ক্ষতিকর খাবারের বদলে ডায়েটে রাখুন ডাবের পানি।

ডাবের পানিতে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, সোডিয়াম রয়েছে। তাই শরীরে এই সব খনিজের অভাব রুখে দিতে পারে ডাবের পানি। প্রতি দিন এই ডাবের পানি ডায়েটে রাখলে শরীরে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতাও বাড়ে। পটাশিয়াম থাকায় ডায়ারিয়া রুখতে এই পানি খুব প্রয়োজনীয়।

ডাবের পানি প্রাকৃতিক ভাবেই স্যালাইন ওয়াটারের কাজ করে। ক্লান্তি কমাতে, শরীরকে ঠান্ডা রাখতে খুব উপকারী এই পানি। সমুদ্র উপকূলে বা রোদে যারা কাজ করেন তারা দিনে দুই-তিনটি ডাবের পানি পান করতে পারেন।

ডাবের পানিতে বেশ কিছু উপকারী উৎসেচক থাকায় তা হজম অত্যন্ত সাহায্য করে। অনেকেরই ভারী কিছু খাওয়ার পর ঠান্ডা পানীয় খাওয়ার অভ্যাস আছে। সে অভ্যাস বদলে ডাবের পানি খান ঠান্ডা পানীয়ের পরিবর্তে।