তুফানের আর খায়রুল হকের ‘লাঞ্ছনা’ সমান: রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক : বগুড়ায় ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার শ্রমিক লীগের বহিষ্কৃত নেতা তুফান সরকারের সঙ্গে সাবেক বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হকের তুলনা করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেছেন, তুফানের নারী লাঞ্ছনা আর সাবেক বিচারপতি এবিএম খায়রুল হকের গণতন্ত্র লাঞ্ছনা প্রায় সমপর্যায়ের।সোমবার দুপুরে নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় স্বেচ্ছাসেবক দল আয়োজিত দোয়া অনুষ্ঠানে রিজভী এসব কথা বলেন।বগুড়ায় কিশোরীকে ধর্ষণের পর ভুক্তভোগী ও তার মায়ের মাথা ন্যাড়া করে দেয়ার ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়েছেন তুফান সরকার। তাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করেছে শ্রমিক লীগ।আর সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে দেয়া রায়ের তীব্র সমালোচনা করেছেন সাবেক প্রধান বিচারপতি ও আইন কমিশনের চেয়ারম্যান এ বি এম খায়রুল হক। তিনি এই রায়কে অপরিপক্ক বলেছেন। রায়ে অপ্রাসঙ্গিক বক্তব্য দেয়ারও সমালোচনা করেছেন তিনি। বলেছেন, রায় দেখে মনে হচ্ছে পিপলস রিপাবলিক অব বাংলাদেশ এর বদলে জাজেস রিপাবলিক অব বাংলাদেশে হতে যাচ্ছে।খায়রুল হকের দেয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ‘অনেক অন্যায় করেছেন, অনেক অবিচার করেছেন। খায়রুল হকের ত্রয়োদশ সংশোধনী বাতিলের মধ্য দিয়ে একটি অনির্বাচিত পার্লামেন্ট গঠনের সুযোগ হয়েছে।’রায় নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাদের বক্তব্যের সমালোচনা করেন রিজভী। বলেন দুঃশাসন জারি রাখার জন্য ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে আপনারা ডিগবাজি খাচ্ছেন। তারা পাগলের প্রলাপ বকছেন। তাদের এতদিনের যেই শাসন তা উল্টে পাল্টে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। এজন্যই তারা মাননীয় প্রধান বিচারপতি ও ষোড়শ সংশোধনীর রায় নিয়ে উল্টাপাল্টা মন্তব্য করছেন।’বিএনপি নেতা বলেন নয়াপল্টন কার্যালয়ের সামনে থেকে নেতাকর্মীদেরকে গ্রেপ্তার করে আপনারা মনে করছেন রায় পাল্টে যাবে। আপনাদের দুঃশাসন অব্যাহত থাকবে। এই সম্ভাবনা একেবারেই কম।’চোখে অস্ত্রোপচারের পর এখনো বেগম খালেদা জিয়ার চোখের ব্যান্ডেজ খোলা হয়নি জানিয়ে রিজভী বলেন, ‘চিকিৎসক এখনো তাকে দেখছেন। আশা করছি আজ কালের মধ্যে চোখের ব্যান্ডেজ খোলা হবে।’সংগঠনের সভাপতি শফিউল বারী বাবুর সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিল সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভুইয়া জুয়েল।এসময় বক্তব্য রাখেন দলের যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক দলের এস এম জিলানী, সিনিয়র সহ সভাপতি রফিক হাওলাদার। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন ওলামা দলের সভাপতি আবদুল মালেক।