তিস্তার চরে সরিষার বাম্পার ফলন

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : আবহাওয়া প্রতিকুলে থাকা শর্তেও চলতি মৌসুমে গাইবান্ধা পলাশবাড়ী উপজেলার তিস্তার চরে সরিষার বাম্পার ফলন হওয়ায় কৃষকের মুখে হাসি । ইতিমধ্যে অনেকে ক্ষেত থেকে সরিষা উঠাতে শুরু করেছে।
চলতি মৌসুমে উপজেলার তিস্তার চরাঞ্চলে সরিষার ব্যাপক চাষাবাদ হয়েছে। বিশেষ করে সরিষা বারী-১৪,বারী-৯ জাতের বাম্পার ফলন হয়েছে।
উপজেলার কিশোরগাড়ী, হোসেনপুর, হরিনাথপুর, ইউনিয়নের উপর দিয়ে প্রবাহিত রাক্ষুসি তিস্তা নদী এখন মরায় পরিনত হয়েছে। তিস্তার ধু-ধু বালু চর এখন নানাবিধ ফসলের চাষাবাদে ভরে উঠেছে।
অন্যান্য ফসলের পাশাপাশি সরিষার চাষ করেছে অনেকে। উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে চলতি মৌসুমে ১৩০ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষাবাদ হয়েছে। এর সিংহভাগ হয়েছে চরে। কিশোরগাড়ী মেঘার চরের অকৃষক আমজাদ আলী জানান তিনি ৩ বিঘা জমিতে বারী-১৪ জাতের সরিষার চাষ করেছে। ইতিমধ্যে তিনি সরিষা ঘরে তুলেছেন।
তিনি বলেন তার প্রতিবিঘা জমিতে ৭ হতে ৮ মন সরিষা হয়েছে। প্রতিমন সরিষার বর্তমান বাজার দর ১হাজার ৮০০ হতে ২ হাজার টাকা। এতে বিঘাপ্রতি খরচ বাদদিয়ে তার আয় হয়েছে ১০ হাজার টাকা। যা অন্যান্য ফসলের তুলনায় অনেক বেশি।
উপজেলা কৃষি অফিসার আজিজুল ইসলাম ইসলাম জানান বর্তমানে চরাঞ্চলে এই মৌসুমের বিভিন্ন ফসলের চাষাবাদ বেশি হচ্ছে। কারন চরাঞ্চলের মাটি এখন অত্যন্ত উর্ববর। যে কোন ফসলের ফলন ভাল হচ্ছে। বিশেষ করে সরিষা চাষে অল্প খরচে অধিক মুনাফা পাচ্ছে কৃষকরা।