তালায় সরস্বতী প্রতিমা বিক্রি জমজমাট

এসএম বাচ্চু, তালা (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা : সারা দেশের ন্যায় তালায়ও ৯-১০ ফেব্রুয়ারি হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিদ্যার দেবী সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বসেছে প্রতিমা বিক্রির ছোট হাট বা দোকান। এসব হাট বা দোকান গুলোতে সরস্বতী প্রতিমা বেচা-বিক্রি চলবে পূজা শুরু হওয়া পর্যন্ত।

হিন্দুধর্ম মতে বিদ্যার দেবী সরস্বতী। হিন্দু ধর্মাবলম্বী শিক্ষার্থীরা দেবীর আশির্বাদ লাভের আশায় প্রতিবছর পঞ্জিকা মতে মাঘ মাসের পঞ্চমী তিথিতে সরস্বতী দেবীর পূজা করে থাকেন। এ পূজা উপলক্ষে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়ীতে ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নির্মাণ করা হয়েছে অস্থায়ী মন্দির। প্রতিটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূজা উদযাপনের লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের মাঝে চলছে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, তালা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বসেছে অস্থায়ী সরস্বতী প্রতিমা বিক্রির হাট বা দোকান। উপজেলার তালা বাজার, গোনালী বাজার, জেঠুয়া বাজার, পাটকেলঘাটা বাজারসহ প্রায় সকল বাজারে অস্থায়ী ভাবে প্রতিমা বিক্রি হচ্ছে জমজমাট। প্রতিমাগুলো ১শত টাকা থেকে শুরু করে দুই হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রয় করা হচ্ছে।

প্রতিমা শিল্পী অতুল জানান, মূর্তি তৈরী উপকরণ বাঁশ, কাঠ, ছন ও রং এর দাম বেড়ে গেছে। এ বছর প্রতিমা তৈরীর জিনিসপত্রের দাম বেশী হওয়ায় প্রতিমা বেশী দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। এর উপরই আমাদের সংসার চলে। জিনিসপত্রের দাম বেশী তাই আমরা একটু বেশী না নিয়ে পারছিনা। তবে ক্রেতারা দামে ফিরছেন না যা এনেছি তা বিক্রি হয়ে যাচ্ছে।

প্রতিমা বিক্রেতা নিতাই হালদার জানান, আমি এই বছর প্রথম প্রতিমা বিক্রয় করছি এর আগে কোন দিন করিনি। এবার প্রায় ৫০ পিস প্রতিমা এনে ছিলাম এখন মাত্র ৫টি প্রতিমা আছে আশা করছি এগুলাও বিক্রি হবে। দাম বেশি নেওয়া বিষয়ে বলেন, আমরা শিল্পীদের কাছ থেকে প্রতিমা একটু দাম বেশি দিয়ে এনেছি তাই বেশি দামে বিক্রয় করছি।

প্রতিমা ক্রয় করতে আসা এক শিক্ষক জানান, আমারা আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রতি বছর বিদ্যারদেবী সরস্বতী পূজা করি। তারই ধারাবাহিকতায় এ বছর সরস্বতী প্রতিমা কিনতে এসেছি। তবে বাজারে প্রতিমা তৈরীর জিনিস পত্রের দাম বেশি থাকায় দাম একটু বেশিই নিচ্ছে বিক্রেতারা।