ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে থেমে থেমে যান চলাচল

ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের এলেঙ্গা থেকে রাবনা বাইপাস পর্যন্ত ৮ কিলোমিটার সড়ক জুড়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। কোথাও কোথাও থেমে থেমে যান চলাচল করছে। এছাড়া, মহাসড়কের বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব হতে মির্জাপুর পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানেও খণ্ড খণ্ড যানজটের সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাত থেকে মহাসড়কের এলেঙ্গা থেকে রাবনা বাইপাস, করটিয়া অংশ এবং গাজীপুরের চন্দ্র থেকে মির্জাপুর পর্যন্ত এ অবস্থা রয়েছে। এতে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন যাত্রী ও যানবাহনের চালকরা।

জানা গেছে, হঠাৎ করেই মহাসড়কে যান চলাচল ধীরগতিতে চলছে। মহাসড়কে চারলেনের কাজের গাফিলতির কারণে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে ওই সড়ক দিয়ে চলাচলকারীদের। ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু-টাঙ্গাইল মহাসড়কের এলেঙ্গা থেকে রাবনা বাইপাস পর্যন্ত এ ৮ কিলোমিটার এলাকায় দীর্ঘ যানজট প্রতিদিনের চিত্র। সেই সাথে ধুলো-বালিতে নাকাল যাত্রীরা।

উন্নয়ন প্রকল্পও যে মাঝে মাঝে জনগণের চরম ভোগান্তির কারণ হয় তার উদাহরণ ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক। গাড়ির বাড়তি চাপ এবং ক্রমবর্ধমান দুর্ঘটনা এড়াতে গাজীপুরের ভোগরা থেকে কালিহাতির এলেঙ্গা পর্যন্ত সরকারের নির্দেশে ৭০ কিলোমিটার এলাকায় চার লেন প্রকল্পের কাজ করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানগুলো। তবে কথা ছিলো মানুষের ভোগান্তির বিষয়টি মাথায় রেখেই চারলেনের কাজ করা হবে। তবে ওই কথাই সার। রাস্তার দুইপাশে মাটি খুঁড়ে কাজ করতে থাকায় সড়কে সৃষ্টি হয়েছে খানাখন্দ এবং ছোট-বড় গর্ত। আর তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে শীতের কুয়াশা। যে কারণে এলেঙ্গা থেকে রাবনা পর্যন্ত প্রতিদিন তীব্র যানজট হচ্ছে, ঘটছে দুর্ঘটনা। আর এতে প্রাণ হারাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। পরিবহনের চালকরাও তাদের নির্ধারিত টিপ ধরতে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালাচ্ছেন। এতে গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনায় কবলিত হয়ে প্রাণ হারাচ্ছে যাত্রীরা। ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু-টাঙ্গাইল মহাসড়ক দিয়ে প্রতিদিন উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গসহ অন্যান্য প্রায় ২৬টি জেলার মানুষ চলাচল করে।

যাত্রী ও চালকদের অভিযোগ, চার লেন প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের অবহেলার কারণেই যানজটে নাকাল হতে হচ্ছে তাদের। যানবাহনের চালকরা জানান, কয়েকদিনের বৃষ্টিতে সড়কের অবস্থা আরো খারাপ হয়েছে। সেই সাথে কুয়াশা। মহাসড়কে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। গাড়ী নিয়ে চলাচলে একেবারে অযোগ্য হয়ে পড়েছে। তবে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের দাবি, মহাসড়কের চারলেনের কাজ দ্রুত ও নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে শেষ করার জন্যই সাধারণ মানুষের কিছুটা ভোগান্তি হচ্ছে।

হাইওয়ে পুলিশের এলেঙ্গা ফাঁড়ির সার্জেন্ট তরিকুল ইসলাম যানচলাচল বন্ধের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মহাসড়কে চার লেনের কাজ চলায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তবে মহাসড়কের এলেঙা থেকে টাঙ্গাইল রাবনা বাইপাস পর্যন্ত প্রায় ৮কিলোমিটার সড়কে পরিবহণ চলাচল স্থবির হয়ে যাওয়ায় অন্যান্য অংশে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। তবে টাঙ্গাইল পুলিশসহ হাইওয়ে পুলিশ যানজট নিরসনে কাজ করছে।