টিএমএসএস ও হারভেস্ট প্লাসের উদ্যোগে জিংক ধানের বীজ বাজারজাত করণে আলোচনা সভা

মুহাম্মাদ আবু মুসা : টিএমএসএস ও হারভেস্ট প্লাসের উদ্যোগে রবিবার বগুড়ার নওদাপাড়ায় হোটেল মম ইনের কনফারেন্স হলে বীজ ডিলার ও খুচরা বিক্রেতাদের বায়ো ফরটিফাইড জিংক ধানের বীজ বাজারজাত করণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বগুড়ার অতিরিক্ত পরিচালক আ,ক,ম,শাহরীয়ার। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএডিসি বগুড়ার উপ-পরিচালক মোঃ জাকির হোসেন,টিএমএসএস এর প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপিকা ড. হোসনে আরা বেগম,পরিচালক (চীফ প্রোগ্রাম সেক্টর) মোঃ জাকির হোসেন,হারভেস্ট প্লাসের প্রকল্প সমন্বয়কারী সৈয়দ মোঃ আবু হানিফা প্রমূখ। মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে জিংক ধানের উপকারিতা ও কার্যকারিতা বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন হারভেস্ট প্লাসের কৃষি গবেষণা ও উন্নয়ন কর্মকর্তা মোঃ জাকিউল হাসান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন টিএমএসএস এর জোনাল ম্যানেজার ও প্রকল্প সমন্বয়কারী মোঃ মাহবুবুর রহমান মিঠু। কর্মশালায় জিংক ধান সম্পর্কে বীজ ব্যবসায়ীদেরকে ধারণা দেওয়া হয়। কৃষকদের কাছ থেকে জিংক ধান সংগ্রহ, বীজ বিক্রয় ও সংরক্ষণ পদ্ধতি,জিংক ধান জনপ্রিয় করতে প্রচার প্রচারণার কলা কৌশলসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করা হয়। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও বিএডিসি‘র উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা জিংক ধানের বীজ মজুদ,বাজারজাত ও যান্ত্রিক সহযোগীতার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। উল্লেখ্য মানুষের শরীরে পুষ্টির চাহিদা পূরণের ক্ষেত্রে জিংক চালের ভাত খাওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। জিংক মানুষের শরীরের জন্য অতিব জরুরী একটি খনিজ উপাদান। এই ধানের ভাত খেলে মানুষের শরীরে জিংকের অভাব পূরণ হয়। কর্মশালায় জিংক ধানের বীজ ও চাল দেশের বিভিন্ন স্থানে সাধারণ দোকান থেকে জনগণ ক্রয় করতে পারবেন বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানান।