ঝিনাইদহের সন্তান ওমানে রডকাটা মেশিনে গলা কেটে নিহত

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ সংবাদাতা : ওমান প্রবাসি ঝিনাইদহের টোকন মিয়ার(২৫)মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। শনিবার রাতে ওমানের একটি শহরে তিনি ড্রামের উপর দাড়িয়ে রড কাটছিলেন পা পিছলে রডকাটা মেশিন নিয়ে নিচে পড়ে যান। এতে তার গলার বাম পাশে রড কাটা মেশিনে গলা কেটে যায় ঘটনা স্থলেই তিনি মৃত্যু বরণ করেন। টোকন ঝিনাইদহ সদর উপজেলার শালিয়া গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে। আব্দুল কুদ্দুসের পরিবারে আর কোন সন্তান অবশিষ্ট নেই। আব্দুল কুদ্দুসের তিন সন্তানের মধ্যে সবার অকাল মৃত্যু ঘটেছে, এর আগে দুই সন্তান অজ্ঞাত রোগে মৃত্যু বরণ করেন।
পরিবারের উদ্বৃতি দিয়ে হলিধানী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল রশিদ মিয়া জানান, শনিবার সন্ধ্যার দিকে ওমানের নিজুয়া সোহারিয়া শহরে ড্রামের উপর দাড়িয়ে রড কাটছিলেন টোকন। এ সময় পা পিছলে রডকাটা মেশিন নিয়ে নিচে পড়ে যান। এতে তার গলার বাম পাশে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয় দ্রুত তার সহকর্মীরা নিকটস্থ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করে।
স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বর কবীর হোসেন জানান, ২ বছর আগে টোকন মিয়া ওমানে যায় শ্রমিক হিসেবে। রডকাটা মেশিনে গলা কেটে তার মৃত্যুতে টোকনের মা নিলুফা বেগম ও স্ত্রী মিম আক্তার এ ঘটনায় বাকরুদ্ধ। স্বামীর মৃত্যুর খবর পেয়ে স্ত্রী মিমি আক্তার বারবার মুর্ছা যাচ্ছেন। মা নিলুফা বেগম সন্তানের লাশ দ্রুত দেশে আনার জন্য সরকারের কাছে দাবী জানিয়েছেন।

Inline
Inline