ঝালকাঠিতে দুই যুবক খুন

রহিম রেজা, ঝালকাঠি থেকে : ঝালকাঠি সদর উপজেলার কীর্ত্তিপাশা গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মেহেদী হাসান মজুমদার নামে (২৪) এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা এবং জেলার রাজাপুরের ভাতকাঠি গ্রামে সবুজ হোসেন (২৫) নামে এক নির্মাণশ্রমিককে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।
রবিবার দুপুরে সদর উপজেলার কীর্ত্তিপাশা গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জেরের এ ঘটনায় উভয় পক্ষের পাঁচজন আহত হয়েছে। পুলিশ ২ জনকে আটক করেছে। আহতদের ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত মেহেদী হাসান কীর্ত্তিপাশা গ্রামের দুলাল মজুমদারের ছেলে।
ঝালকাঠি থানার ওসি শোনিত কুমার গায়েন জানান, কীর্ত্তিপাশা গ্রামের বাদশা সরদারের সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধ ছিল মেহেদী হাসানদের পরিবারের। এরই জের ধরে আজ দুপুরে উভয় পক্ষের তর্কাতর্কি হয়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। বাদশা সরদারের লোকজন লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মেহেদী হাসানকে হত্যা করে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের পাঁচজন আহত হয়। এ ঘটনায় মামলার আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন ওসি। অপরদিকে রোববার দুপুরে রাজাপুরের ভাতকাঠি বাড়ির পাশের একটি বাগান থেকে সবুজ হোসেনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সবুজ ওই এলাকার মৃত মোকাম্মেল হোসেনের ছেলে। সবুজ রাজমিস্ত্রীর জোগালে ও ইলেকট্রিকের কাজ করতো।
রাজাপুর থানার ওসি মামসুল আরেফিন জানান, তার মুখমন্ডলে কিলঘুষির দাগ এবং গলায় রশ্মি বা বৈদ্যুতিক তার দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে দুর্বৃত্তরা তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। প্রেম সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এ হত্যাকান্ড ঘটতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে। বিষয়টি তদন্ত করা দেখা হচ্ছে। তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। ঈদের দিন শনিবার রাত ৯টার দিকে বাড়িতে গিয়ে একই বাড়ির প্রতিবেশী আব্দুল লতিফের ঘরে গিয়ে রুটি ও পান খেয়ে নিজ ঘরে না গিয়ে আবার বাড়ি থেকে বাহিরে বের হন তিনি। রাতে আর ঘরে ফেরেনি।

Inline
Inline