জাতীয় পার্টি সরকারে না বিরোধী দলে, সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক : একাদশ জাতীয় সংসদে জাতীয় পার্টির (জাপা) অবস্থান কী হবে, সে বিষয়ে আগামীকাল বৃহস্পতিবার (৩ জানুয়ারি) সিদ্ধান্ত নেবে দলের পার্লামেন্টারি বোর্ড।

বুধবার (২ জানুয়ারি) দুপুরে নির্বাচন পরবর্তী জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্যদের প্রথম বৈঠক শেষে দলের মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

সভায় দলের কো-চেয়ারম্যান জি এম কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, ফয়সল চিশতী, আবু হোসেন বাবলা, মেজর জেনারেল (অব.) মাসুদ উদ্দিন, সালমা ইসলামসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন। গত সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ এবং পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদকে অবশ্য সভায় দেখা যায়নি।

সংসদে বিরোধী দল হতে গেলে ১০ শতাংশ আসন থাকতে হয়, সেখানে জাতীয় পার্টির আছে ২২টি আসন। এ বিষয়ে এবং মন্ত্রিত্বের ব্যাপারে জাতীয় পার্টির অবস্থান কী হবে- সাংবাদিকেরা জানতে চাইলে জি এম কাদের বলেন, ‘এই জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসনসংখ্যার দিক দিকে আওয়ামী লীগের পরই আমাদের অবস্থান। আমরা মহাজোটে ছিলাম, এখনও আছি। ভবিষ্যৎ বুঝে দেখা হবে।’

তিনি বলেন, আগামীকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় পার্টির নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথ নিয়ে সংসদীয় দলের সভায় অংশ নেবেন। দেশ ও মহাজোটের স্বার্থ বিবেচনায় রেখে পার্টির সংসদীয় দলের সভায় সিদ্ধান্ত হবে সংসদে জাতীয় পার্টির কী ভূমিকা হবে।

জি এম কাদের আরও বলেন, এরপর আলাপ-আলোচনা হবে মহাজোটের সঙ্গে। কারণ, আমরা মহাজোটে ছিলাম, মহাজোটের শরিকদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে নির্বাচন করেছি। আমাদের লক্ষ্য এবং কথা ছিল অভিন্ন। তাই আলাপ-আলোচনার মধ্য দিয়েই সব সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।